০৬:৩৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অতীতের প্রেম

print news -

বিনোদন ডেস্ক:  আজকের অনুষ্ঠানে চীনের কুয়াং তোং অঞ্চলের একজন জনপ্রিয় গায়কের আপনাদেরকে পরিচয় করিয়ে দেবো, তার নাম ছেন রু চিয়া। তিনি কোমল কণ্ঠ, সুন্দর চেহারা ও প্রচলিত সংগীতশৈলীর জন্য গত শতাব্দীর ৮০ ও ৯০ যুগে চীনে অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং এক সময় সংগীতের প্রবণতার নেতৃত্ব দিতেন। বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমরা একসঙ্গে তার কিছু সুন্দর গান শুনবো। অনুষ্ঠানের শুরুতে শুনুন ছেন রু চিয়ার একটি সুন্দর গান ‘গভীর শরত্কাল’।গান ১

ছেন রু চিয়া ১৯৬৪ সালে চীনের কুয়াং তোং প্রদেশের কুয়াং চৌ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ছোট থেকে তিনি গান গাইতে খুব পছন্দ করতেন। প্রাথমিক স্কুলে পড়ার সময় তিনি কুয়াং চৌ’র একটি যুব গায়কদলে যোগ দেন। যখন তিনি উচ্চ বিদ্যালয় শেষ করে, তখন কুয়াং চৌতে পপ সংগীতের প্রচলন শুরু হয়। ছেন রু চিয়া এর প্রতি বেশ আগ্রহী এবং এক সংগীত দলে যোগ দিয়ে গান গাইতে শুরু করেন। পরে তিনি সেই সংগীত দলের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় পারফর্ম করেন, এমনকি জার্মান, নেদারল্যান্ড ও ব্রিটেনে পারফর্ম করার আমন্ত্রণ পান। এরপর ছেন রু চিয়া পেশাদার গায়ক হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।গান ২

১৯৮৮ সালে ছেন রু চিয়া কুয়াং তোং প্রদেশের একটি সংগীত প্রতিযোগিতায় অংশ নেন এবং জনপ্রিয় পারফরমেন্স পুরস্কার অর্জন করেন। পরে তিনি চীনের তৃতীয় জাতীয় তরুণ গায়ক টিভি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। এটা সেই সময়ে গায়ক-গায়িকার জন্য চীনের সবচেয়ে প্রভাবশালী ও প্রামাণ্য সংগীত প্রতিযোগিতা। কোনো পেশাদার সংগীত প্রশিক্ষণ না নিলেও ছেন রু চিয়া এই প্রতিযোগিতায় পপ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হন। এর মাধ্যমে অনেকে তার নাম জেনেছে, তার পেশাদার সংগীত জীবনও শুরু হয়। বন্ধুরা, এখন শুনুন ছেন রু চিয়ার প্রতিযোগিতায় গাওয়া একটি সুন্দর গান ‘সন্ধ্যায় গরু চরানো’।গান ৩

 2024020109351371598 -

১৯৮৯ সালে ছেন রু চিয়ার তার প্রথম ব্যক্তিগত অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামটি মুক্তির পরই বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে, মাত্র ৩ মাসের মধ্যে এই অ্যালবামের ১০ লাখেরও বেশি কপি বিক্রি হয়। তিনি সেই বছরের বসন্ত উত্সব গালায় তার গান ‘অতীতের প্রেম’ পরিবেশন করেন। যা পরে বসন্ত উত্সব গালার অন্যতম ক্লাসিক পারফরমেন্স হিসেবে বিবেচিত হয়। বন্ধুরা, এখন শুনুন ছেন রু চিয়ার জনপ্রিয় গান ‘অতীতের প্রেম’।গান ৪

গত শতাব্দীর ৯০ যুগে চীনের পপ সংগীতের মধ্যে অনেক গান হল বিদেশি জনপ্রিয় গানের চীনা সংস্করণ। কম গায়ক গায়িকা চীনা শিল্পী রচিত ও তৈরি পপ গান গায়। তবে ছেন রু চিয়া তার মধ্যে একটি। তিনি নিজের অ্যালবামে অনেক নতুন চীনা পপ গান প্রকাশ করেন, এসব গানও ব্যাপক জনপ্রিয় হয়। বন্ধুরা, এবার আমরা একসঙ্গে শুনবো চেন রু চিয়ার প্রকাশিত নতুন পপ গানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রতিনিধিত্বকারী একটি গান ‘অর্ধেক চাঁদ’। গানে লেখা হয় অর্ধেক চাঁদ দেখে জন্মস্থান ও অতীতের কথা মনে আসে। ছেন রু চিয়ার কোমল কণ্ঠে মানুষও নিজের জন্মস্থানের কথা ভাবে এবং মনোমুগ্ধ হয়। বন্ধুরা, এখন গানটি শুনি।গান ৫

 2024020109351377303 -

এবার আমরা শুনবো ছেন রু চিয়ার খুব জনপ্রিয় একটি নতুন পপ চীনা গান, গানের নাম ‘মনের মেয়ে’। গানের কথা হল মনের মেয়েকে লেখা একটি চিঠি। বেশি মিষ্টি কথা না লিখলেও সাধারণ ও সরল ভাষা থেকে অনুভব করা যায়, মনের মেয়ের প্রতি আন্তরিক ও গভীর ভালোবাসা। গানটি পরে ক্লাসিক চীনা পপ গানের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয় এবং অন্যান্য গায়ক গায়িকা গানটি বার বার গেয়েছেন। বন্ধুরা, এখন গানটি শুনি।গান ৬

ছেন রু চিয়া মাত্র ৪০ বছর বয়সে হৃদরোগে মারা যান। সংগীত জীবনে বেশি গান প্রকাশ না করলেও অনেক গান এখনও বেশি জনপ্রিয় ও ক্লাসিক। বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে আমরা একসঙ্গে ছেন রু চিয়ার আরেকটি সুন্দর গান ‘প্রার্থনা করি’ শুনবো। আশা করি, আপনারা তার গানগুলো পছন্দ করবেন।গান ৭

বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান তাহলে এখানেই শেষ করছি। আশা করি, আমাদের অনুষ্ঠানে প্রচারিত গানগুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। এখন বিদায় নিচ্ছি। সবাই ভালো থাকুন, সুন্দর থাকুন ও সুস্থ থাকুন। আবার কথা হবে। চাই চিয়ান।

অতীতের প্রেম

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৫:৩৭:১২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
print news -

বিনোদন ডেস্ক:  আজকের অনুষ্ঠানে চীনের কুয়াং তোং অঞ্চলের একজন জনপ্রিয় গায়কের আপনাদেরকে পরিচয় করিয়ে দেবো, তার নাম ছেন রু চিয়া। তিনি কোমল কণ্ঠ, সুন্দর চেহারা ও প্রচলিত সংগীতশৈলীর জন্য গত শতাব্দীর ৮০ ও ৯০ যুগে চীনে অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং এক সময় সংগীতের প্রবণতার নেতৃত্ব দিতেন। বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠানে আমরা একসঙ্গে তার কিছু সুন্দর গান শুনবো। অনুষ্ঠানের শুরুতে শুনুন ছেন রু চিয়ার একটি সুন্দর গান ‘গভীর শরত্কাল’।গান ১

ছেন রু চিয়া ১৯৬৪ সালে চীনের কুয়াং তোং প্রদেশের কুয়াং চৌ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। ছোট থেকে তিনি গান গাইতে খুব পছন্দ করতেন। প্রাথমিক স্কুলে পড়ার সময় তিনি কুয়াং চৌ’র একটি যুব গায়কদলে যোগ দেন। যখন তিনি উচ্চ বিদ্যালয় শেষ করে, তখন কুয়াং চৌতে পপ সংগীতের প্রচলন শুরু হয়। ছেন রু চিয়া এর প্রতি বেশ আগ্রহী এবং এক সংগীত দলে যোগ দিয়ে গান গাইতে শুরু করেন। পরে তিনি সেই সংগীত দলের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় পারফর্ম করেন, এমনকি জার্মান, নেদারল্যান্ড ও ব্রিটেনে পারফর্ম করার আমন্ত্রণ পান। এরপর ছেন রু চিয়া পেশাদার গায়ক হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।গান ২

১৯৮৮ সালে ছেন রু চিয়া কুয়াং তোং প্রদেশের একটি সংগীত প্রতিযোগিতায় অংশ নেন এবং জনপ্রিয় পারফরমেন্স পুরস্কার অর্জন করেন। পরে তিনি চীনের তৃতীয় জাতীয় তরুণ গায়ক টিভি প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। এটা সেই সময়ে গায়ক-গায়িকার জন্য চীনের সবচেয়ে প্রভাবশালী ও প্রামাণ্য সংগীত প্রতিযোগিতা। কোনো পেশাদার সংগীত প্রশিক্ষণ না নিলেও ছেন রু চিয়া এই প্রতিযোগিতায় পপ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হন। এর মাধ্যমে অনেকে তার নাম জেনেছে, তার পেশাদার সংগীত জীবনও শুরু হয়। বন্ধুরা, এখন শুনুন ছেন রু চিয়ার প্রতিযোগিতায় গাওয়া একটি সুন্দর গান ‘সন্ধ্যায় গরু চরানো’।গান ৩

 2024020109351371598 -

১৯৮৯ সালে ছেন রু চিয়ার তার প্রথম ব্যক্তিগত অ্যালবাম প্রকাশ করেন। অ্যালবামটি মুক্তির পরই বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে, মাত্র ৩ মাসের মধ্যে এই অ্যালবামের ১০ লাখেরও বেশি কপি বিক্রি হয়। তিনি সেই বছরের বসন্ত উত্সব গালায় তার গান ‘অতীতের প্রেম’ পরিবেশন করেন। যা পরে বসন্ত উত্সব গালার অন্যতম ক্লাসিক পারফরমেন্স হিসেবে বিবেচিত হয়। বন্ধুরা, এখন শুনুন ছেন রু চিয়ার জনপ্রিয় গান ‘অতীতের প্রেম’।গান ৪

গত শতাব্দীর ৯০ যুগে চীনের পপ সংগীতের মধ্যে অনেক গান হল বিদেশি জনপ্রিয় গানের চীনা সংস্করণ। কম গায়ক গায়িকা চীনা শিল্পী রচিত ও তৈরি পপ গান গায়। তবে ছেন রু চিয়া তার মধ্যে একটি। তিনি নিজের অ্যালবামে অনেক নতুন চীনা পপ গান প্রকাশ করেন, এসব গানও ব্যাপক জনপ্রিয় হয়। বন্ধুরা, এবার আমরা একসঙ্গে শুনবো চেন রু চিয়ার প্রকাশিত নতুন পপ গানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রতিনিধিত্বকারী একটি গান ‘অর্ধেক চাঁদ’। গানে লেখা হয় অর্ধেক চাঁদ দেখে জন্মস্থান ও অতীতের কথা মনে আসে। ছেন রু চিয়ার কোমল কণ্ঠে মানুষও নিজের জন্মস্থানের কথা ভাবে এবং মনোমুগ্ধ হয়। বন্ধুরা, এখন গানটি শুনি।গান ৫

 2024020109351377303 -

এবার আমরা শুনবো ছেন রু চিয়ার খুব জনপ্রিয় একটি নতুন পপ চীনা গান, গানের নাম ‘মনের মেয়ে’। গানের কথা হল মনের মেয়েকে লেখা একটি চিঠি। বেশি মিষ্টি কথা না লিখলেও সাধারণ ও সরল ভাষা থেকে অনুভব করা যায়, মনের মেয়ের প্রতি আন্তরিক ও গভীর ভালোবাসা। গানটি পরে ক্লাসিক চীনা পপ গানের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয় এবং অন্যান্য গায়ক গায়িকা গানটি বার বার গেয়েছেন। বন্ধুরা, এখন গানটি শুনি।গান ৬

ছেন রু চিয়া মাত্র ৪০ বছর বয়সে হৃদরোগে মারা যান। সংগীত জীবনে বেশি গান প্রকাশ না করলেও অনেক গান এখনও বেশি জনপ্রিয় ও ক্লাসিক। বন্ধুরা, অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে আমরা একসঙ্গে ছেন রু চিয়ার আরেকটি সুন্দর গান ‘প্রার্থনা করি’ শুনবো। আশা করি, আপনারা তার গানগুলো পছন্দ করবেন।গান ৭

বন্ধুরা, আজকের অনুষ্ঠান তাহলে এখানেই শেষ করছি। আশা করি, আমাদের অনুষ্ঠানে প্রচারিত গানগুলো আপনাদের ভালো লেগেছে। এখন বিদায় নিচ্ছি। সবাই ভালো থাকুন, সুন্দর থাকুন ও সুস্থ থাকুন। আবার কথা হবে। চাই চিয়ান।