০৮:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু

print news -

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু

প্রিয় বিয়ানীবাজারবাসী,আগামী ০৭/০৮/২০২১ তারিখে সমগ্র দেশের মতো বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে।

তাই সকল ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডের ১৮ বছরের উর্ধ্বে যে সকল নাগরিকের এন আই ডি কার্ড আছে সে সকল জনগনকে নিবন্ধন করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

নিজের স্মার্ট ফোন,ল্যাপটোপ বা কম্পিউটার থেকে সুরক্ষা আ্যাপসের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে পারবেন।

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান, মেম্বার,রাজনীতিবিদ এবং সচেতন নাগরিক সমাজকে সামগ্রিক সহায়তা করার জন্য অনুরোধ করছি।

আপনার এবং আপনার পরিবারের সকলের টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে অতি দ্রুত নিবন্ধন সম্পন্ন করুন।

সবাই টিকা গ্রহণ করুন এবং সুরক্ষিত থাকুন।

সুএঃ উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্স, বিয়ানীবাজার, সিলেট

 

 

সিলেট বিভাগে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৬৯৩

শুক্রবার সকাল ৮টার পর থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৯৩ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে নতুন করে আরও ৩৪০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে।

বিয়ানীবাজার উপজেলার শনিবার (৩১ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করা শনাক্ত হওয়া ৩৪০ জনকে নিয়ে সিলেট বিভাগে মোট করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৯ হাজার ৪৫৬ জনে। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২১ হাজার ৬৯৮ জন, সুনামগঞ্জে ৪ হাজার ৬০৫ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৪ হাজার ৪৯৫ জন, মৌলভীবাজারে ৫ হাজার ৪১৯ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ হাজার ১৫২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে শনাক্ত হওয়া ৩৪০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ১৭৩ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া বিভাগে সুনামগঞ্জ জেলার ৩২ জন, হবিগঞ্জের ৫৫ জন ও মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা ৪৪ জন। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৩৬ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিলেট স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযারী শনিবার বিভাগে শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ। যার ৩৩ দশমিক ৮২ শতাংশ সিলেট জেলায়, সুনামগঞ্জ ৩৩ দশমিক ১৯ শতাংশ, হবিগঞ্জে ৩৯ দশমিক ৬৪ শতাংশ ও মৌলভীবাজারে ৪৬ দশমিক ৪১ শতাংশ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ৯ জন রোগী। তাদের ২ জন সিলেট জেলার ও একজন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জন রোগী করোনায় মারা গেছেন। এনিয়ে বিভাগে মৃত্যুবরণ করা মোট রোগীর সংখ্যা ৬৯৩ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৫৪০ জন, সুনামগঞ্জে ৪৯ জন, হবিগঞ্জে ৩০ জন, মৌলভীবাজারের ৫০ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৪ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩৫ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ১৮ জন, ৫ জন সুনামগঞ্জে, হবিগঞ্জ জেলায় ১ জন, মৌলভীবাজারে ৪জন ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৭ জন। সব মিলিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৪০৭ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ২৭৫ জন, সুনামগঞ্জে ৭৪ জন, হবিগঞ্জে ৩০ জন, মৌলভীবাজারে ২৮ জন ভর্তি রয়েছেন।

একইদিনে সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ২১৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যাদের মধ্যে ১১০ জন সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া ১৯ জন সুনামগঞ্জে, ৭ জুন হবিগঞ্জে, ৭৫ জন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে আরও ৭ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এনিয়ে বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৩০ হাজার ৫৩৮ জন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২০ হাজার ৭৫৬ জন, সুনামগঞ্জে ৩ হাজার ৩১৬ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ২ হাজার ৫০০ জন, মৌলভীবাজারে ৩ হাজার ৭৬৪ জন ও ওসমানী হাসপাতালে ২০২ জন।

এদিকে সিলেটের চার জেলায় র‍্যাপিড এন্টিজেন টেষ্টের মাধ্যমে ৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। যাদের সকলেই সিলেট জেলার। এছাড়া গত চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে ৮৭ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।

 

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০১:৪৭:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১
print news -

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু

প্রিয় বিয়ানীবাজারবাসী,আগামী ০৭/০৮/২০২১ তারিখে সমগ্র দেশের মতো বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডে করোনা ভ্যাকসিনের ১ম ডোজ প্রদান কার্যক্রম শুরু হবে।

তাই সকল ইউনিয়নের সাবেক ১ নং ওয়ার্ডের ১৮ বছরের উর্ধ্বে যে সকল নাগরিকের এন আই ডি কার্ড আছে সে সকল জনগনকে নিবন্ধন করার জন্য অনুরোধ করা হলো।

নিজের স্মার্ট ফোন,ল্যাপটোপ বা কম্পিউটার থেকে সুরক্ষা আ্যাপসের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে পারবেন।

বিয়ানীবাজার উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান, মেম্বার,রাজনীতিবিদ এবং সচেতন নাগরিক সমাজকে সামগ্রিক সহায়তা করার জন্য অনুরোধ করছি।

আপনার এবং আপনার পরিবারের সকলের টিকা প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে অতি দ্রুত নিবন্ধন সম্পন্ন করুন।

সবাই টিকা গ্রহণ করুন এবং সুরক্ষিত থাকুন।

সুএঃ উপজেলা হেলথ কমপ্লেক্স, বিয়ানীবাজার, সিলেট

 

 

সিলেট বিভাগে করোনায় মৃত্যু বেড়ে ৬৯৩

শুক্রবার সকাল ৮টার পর থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগে আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে বিভাগে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৯৩ জনে। এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় বিভাগে নতুন করে আরও ৩৪০ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি শনাক্ত করা হয়েছে।

বিয়ানীবাজার উপজেলার শনিবার (৩১ জুলাই) দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. হিমাংশু লাল রায় স্বাক্ষরিত কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করা শনাক্ত হওয়া ৩৪০ জনকে নিয়ে সিলেট বিভাগে মোট করোনা প্রমাণিত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৯ হাজার ৪৫৬ জনে। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২১ হাজার ৬৯৮ জন, সুনামগঞ্জে ৪ হাজার ৬০৫ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৪ হাজার ৪৯৫ জন, মৌলভীবাজারে ৫ হাজার ৪১৯ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৩ হাজার ১৫২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে নতুন করে শনাক্ত হওয়া ৩৪০ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর ১৭৩ জনই সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া বিভাগে সুনামগঞ্জ জেলার ৩২ জন, হবিগঞ্জের ৫৫ জন ও মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা ৪৪ জন। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আরও ৩৬ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিলেট স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযারী শনিবার বিভাগে শনাক্তের হার ৩৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ। যার ৩৩ দশমিক ৮২ শতাংশ সিলেট জেলায়, সুনামগঞ্জ ৩৩ দশমিক ১৯ শতাংশ, হবিগঞ্জে ৩৯ দশমিক ৬৪ শতাংশ ও মৌলভীবাজারে ৪৬ দশমিক ৪১ শতাংশ।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন আরও ৯ জন রোগী। তাদের ২ জন সিলেট জেলার ও একজন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৬ জন রোগী করোনায় মারা গেছেন। এনিয়ে বিভাগে মৃত্যুবরণ করা মোট রোগীর সংখ্যা ৬৯৩ জন। এর মধ্যে সিলেট জেলার ৫৪০ জন, সুনামগঞ্জে ৪৯ জন, হবিগঞ্জে ৩০ জন, মৌলভীবাজারের ৫০ জন ও সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৪ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৩৫ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ১৮ জন, ৫ জন সুনামগঞ্জে, হবিগঞ্জ জেলায় ১ জন, মৌলভীবাজারে ৪জন ও ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৭ জন। সব মিলিয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৪০৭ জন। এর মধ্যে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ২৭৫ জন, সুনামগঞ্জে ৭৪ জন, হবিগঞ্জে ৩০ জন, মৌলভীবাজারে ২৮ জন ভর্তি রয়েছেন।

একইদিনে সিলেট বিভাগে নতুন করে আরও ২১৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যাদের মধ্যে ১১০ জন সিলেট জেলার বাসিন্দা। এছাড়া ১৯ জন সুনামগঞ্জে, ৭ জুন হবিগঞ্জে, ৭৫ জন মৌলভীবাজার জেলার বাসিন্দা। এদিকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে আরও ৭ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এনিয়ে বিভাগে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া রোগীর সংখ্যা ৩০ হাজার ৫৩৮ জন। যাদের মধ্যে সিলেট জেলায় ২০ হাজার ৭৫৬ জন, সুনামগঞ্জে ৩ হাজার ৩১৬ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ২ হাজার ৫০০ জন, মৌলভীবাজারে ৩ হাজার ৭৬৪ জন ও ওসমানী হাসপাতালে ২০২ জন।

এদিকে সিলেটের চার জেলায় র‍্যাপিড এন্টিজেন টেষ্টের মাধ্যমে ৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। যাদের সকলেই সিলেট জেলার। এছাড়া গত চব্বিশ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে ৮৭ জনকে নতুন করে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে।