০৪:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেট-৬ আসনে নৌকার মাঝি নুরুল ইসলাম নাহিদ

print news -

নিউজ ডেস্ক:  সিলেট-৬ (বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ) নির্বাচনী আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য।

রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চূড়ান্ত মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এই আসন থেকে আওয়ামী লীগের টিকিটে ১৯৯৬ সালে সপ্তম, ২০০৮ সালের নবম, ২০১৪ সালে দশম ও ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন। তিনি সিলেটের রাজনীতিতে পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত।

নাহিদের রাজনৈতিক জীবনের সূচনা ঘটে ষাটের দশকের শুরুতে আইয়ুব খানের সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় কর্মী হিসেবে। তিনি ১৯৯১ সালে সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন এবং ১৯৯৪ সালে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। আওয়ামী লীগে যোগদানের আগ পর্যন্ত তিনি বাম রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন।

এদিকে, নুরুল ইসলাম নাহিদের মনোনয়ন প্রাপ্তির খবরে তার নির্বাচনী এলাকা বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জে আনন্দ মিছিল করেছে তার অনুসারীরা। এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন ১৫ জন নেতা।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৮ ডিসেম্বর এবং নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত চলবে। ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি।

জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

সিলেট-৬ আসনে নৌকার মাঝি নুরুল ইসলাম নাহিদ

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৪:৫১:২৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩
print news -

নিউজ ডেস্ক:  সিলেট-৬ (বিয়ানীবাজার-গোলাপগঞ্জ) নির্বাচনী আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি এই আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য।

রোববার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে চূড়ান্ত মনোনয়নপ্রাপ্তদের নাম ঘোষণা করেন সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এই আসন থেকে আওয়ামী লীগের টিকিটে ১৯৯৬ সালে সপ্তম, ২০০৮ সালের নবম, ২০১৪ সালে দশম ও ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নির্বাচিত হন। তিনি সিলেটের রাজনীতিতে পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে পরিচিত।

নাহিদের রাজনৈতিক জীবনের সূচনা ঘটে ষাটের দশকের শুরুতে আইয়ুব খানের সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনে সক্রিয় কর্মী হিসেবে। তিনি ১৯৯১ সালে সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক হয়েছিলেন এবং ১৯৯৪ সালে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। আওয়ামী লীগে যোগদানের আগ পর্যন্ত তিনি বাম রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন।

এদিকে, নুরুল ইসলাম নাহিদের মনোনয়ন প্রাপ্তির খবরে তার নির্বাচনী এলাকা বিয়ানীবাজার ও গোলাপগঞ্জে আনন্দ মিছিল করেছে তার অনুসারীরা। এই আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন ১৫ জন নেতা।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, নির্বাচনে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ৩০ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হবে ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর, মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৮ ডিসেম্বর এবং নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত চলবে। ব্যালট পেপারে ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি।