০৩:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটে রাত ৮ টার পর দোকান-কোটা শপিং মহল,মার্কেট খোলা রাখলেই জরিমানা,জেলা প্রশাসক

print news -

নিজস্ব প্রতিবেদক:
জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে সারাদেশের মতো এবার সিলেটেও রাত ৮টার পর দোকানপাট, মার্কেট ও বিপণীবিতানগুলো বন্ধে প্রশাসনের অ্যাকশনে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক মো. মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে তিনটি টিম নগরীতে অভিযান শুরু করেছে।এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

তবে প্রথম দিনে মালিক পক্ষকে কেবল মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে। আগামীতে আরো কঠোর পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবুর রহমান।
জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সংকট যাতে সৃষ্টি না হয় সেজন্য সরকার কিছু কঠোর নির্দেশনা জারি করেছেন। সেগুলো মানতে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ থেকে সারাদেশে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিংয়ের পাশাপাশি রাত ৮টার পর মার্কেট, দোকানপাট, বিপণীবিতানগুলো বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় এ নির্দেশ কিছুটা কার্যকর হলেও অধিকাংশ এলাকার দোকানপাট রাত ৮টার পরেও খোলা ছিল।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসন অ্যাকশনে নামবে তা আগে থেকেই গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছিল। যথারীতি রাত ৮টার পর নগরীর জিন্দাবাজারের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান শুরু করে জেলা প্রশাসন। এ সময় বিভিন্ন মার্কেট ও রাস্তার পাশের খোলা দোকানপাটের মালিকপক্ষকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ ও সতর্ক করা হয়। দোকান খোলা রাখার কারণ, সরকারি নির্দেশ অমান্য করা হচ্ছে কেন- ইত্যাদি প্রশ্নের জবাব জানতে চাওয়া হয়। তারপর তাদের সতর্ক করে দোকানগুলো বন্ধ করা হয়েছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, তিনজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে তিনটি মোবাইল কোর্ট নগরীর বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শণ করে দোকানের মালিক ও বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়েছে।

এ সময় গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে সিলেটের জেলা প্রশাসক মজিবুর রহমান জানান, আজ প্রথমদিন। যারা সরকারি নির্দেশ অমান্য করে রাত ৮টার পর দোকানপাট খোলা রেখেছেন তাদেরকে আমরা আজ কেবল সতর্ক করে দোকানপাট বন্ধ করিয়েছি।

তিনি বলেন, আগামী দিনগুলোতে এ ব্যাপারে আমরা আরও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাৎক্ষনিক জরিমানা করা হবে। প্রয়োজনে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার সিলেটের উপ-পরিচালক মামুনুর রশিদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনোয়ার সাদাত, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইমরুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: মোবারক হোসেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সিনিয়র সহকারী কমিশনার জয়নাল আবেদীন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার ইশফাকুল কবির,নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার সাদিয়া বিনতে সোলায়মান, আহসানুল আলম।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

সিলেটে রাত ৮ টার পর দোকান-কোটা শপিং মহল,মার্কেট খোলা রাখলেই জরিমানা,জেলা প্রশাসক

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৪:২২:২৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ জুলাই ২০২২
print news -

নিজস্ব প্রতিবেদক:
জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে সারাদেশের মতো এবার সিলেটেও রাত ৮টার পর দোকানপাট, মার্কেট ও বিপণীবিতানগুলো বন্ধে প্রশাসনের অ্যাকশনে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক মো. মজিবুর রহমানের নেতৃত্বে তিনটি টিম নগরীতে অভিযান শুরু করেছে।এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

তবে প্রথম দিনে মালিক পক্ষকে কেবল মৌখিকভাবে সতর্ক করা হয়েছে। আগামীতে আরো কঠোর পদক্ষেপের কথা জানিয়েছেন সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. মজিবুর রহমান।
জ্বালানী ও বিদ্যুৎ সংকট যাতে সৃষ্টি না হয় সেজন্য সরকার কিছু কঠোর নির্দেশনা জারি করেছেন। সেগুলো মানতে প্রশাসনকে কঠোর হওয়ার নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ থেকে সারাদেশে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিংয়ের পাশাপাশি রাত ৮টার পর মার্কেট, দোকানপাট, বিপণীবিতানগুলো বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় এ নির্দেশ কিছুটা কার্যকর হলেও অধিকাংশ এলাকার দোকানপাট রাত ৮টার পরেও খোলা ছিল।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসন অ্যাকশনে নামবে তা আগে থেকেই গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছিল। যথারীতি রাত ৮টার পর নগরীর জিন্দাবাজারের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান শুরু করে জেলা প্রশাসন। এ সময় বিভিন্ন মার্কেট ও রাস্তার পাশের খোলা দোকানপাটের মালিকপক্ষকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ ও সতর্ক করা হয়। দোকান খোলা রাখার কারণ, সরকারি নির্দেশ অমান্য করা হচ্ছে কেন- ইত্যাদি প্রশ্নের জবাব জানতে চাওয়া হয়। তারপর তাদের সতর্ক করে দোকানগুলো বন্ধ করা হয়েছে।

সিলেটের জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, তিনজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে তিনটি মোবাইল কোর্ট নগরীর বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শণ করে দোকানের মালিক ও বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সতর্ক করা হয়েছে।

এ সময় গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে সিলেটের জেলা প্রশাসক মজিবুর রহমান জানান, আজ প্রথমদিন। যারা সরকারি নির্দেশ অমান্য করে রাত ৮টার পর দোকানপাট খোলা রেখেছেন তাদেরকে আমরা আজ কেবল সতর্ক করে দোকানপাট বন্ধ করিয়েছি।

তিনি বলেন, আগামী দিনগুলোতে এ ব্যাপারে আমরা আরও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে তাৎক্ষনিক জরিমানা করা হবে। প্রয়োজনে আরও কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার সিলেটের উপ-পরিচালক মামুনুর রশিদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) আনোয়ার সাদাত, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইমরুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো: মোবারক হোসেন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সিনিয়র সহকারী কমিশনার জয়নাল আবেদীন, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার ইশফাকুল কবির,নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার সাদিয়া বিনতে সোলায়মান, আহসানুল আলম।