০৫:১৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শেখ রাসেলেন জন্ম দিনে প্রধানমন্ত্রী ও শেখ রেহানার শ্রব্ধা

print news -

অনলাইন ডেক্স:  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের জন্মদিনে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তার দুই বোন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহানা। ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর জন্ম হয়েছিল শেখ রাসেলের। বেঁচে থাকলে মঙ্গলবার তার ৫৮ বছর পূর্ণ হত। ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার করে যে ঘাতক চক্র, ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র রাসেলকেও সেদিন তারা রেহাই দেয়নি।

তখন বিদেশে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। বঙ্গবন্ধুকে জন্মস্থান গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় দাফন করা হলেও রাসেলসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের ঢাকার বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট ১১ বছরের শিশু শেখ রাসেলকেও রেহাই দেয়নি ঘাতক চক্র।

শেখ রাসেলের জন্মদিবস এ বছর দ্বিতীয়বারের মত ‘শেখ রাসেল দিবস’ হিসেবে উদযাপন করা হচ্ছে রাষ্ট্রীয়ভাবে। ‘শেখ রাসেল নির্মলতার প্রতীক, দুরন্ত, প্রাণবন্ত, নির্ভীক’ প্রতিপাদ্যে সারা দেশে পালিত হচ্ছে নানা কর্মসূচি।

দিনটি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার ভোরে ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে বনানী কবরস্থানে যান। সেখানে তারা শেখ রাসেলের পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের কবর জিয়ারত ও মোনাজাত করেন। গোলাপের পাপড়ি ছিটিয়ে শ্রদ্ধা জানান হারানো স্বজনদের স্মৃতির প্রতি।

পরে সকাল ৯টার দিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, শাজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সুবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবদুস সবুর, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল আওয়াল শামীম, আনোয়ার হোসেন, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বনানীতে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং মিলাদে অংশ নেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সকলকে শেখ রাসেলের বিয়োগ বেদনাকে হৃদয়ে ধারণ করার আহ্বান জানান। এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপি এদেশের রাজনীতির জন্য বিষফোঁড়া। দেশের নিরাপত্তা, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বিএনপি বড় অন্তরায়।

‘শেখ রাসেল দিবস’ উপলক্ষে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ উপ কমিটি ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে দুস্থদের মাঝে ভ্যানগাড়ি বিতরণ এবং আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।

জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

শেখ রাসেলেন জন্ম দিনে প্রধানমন্ত্রী ও শেখ রেহানার শ্রব্ধা

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০২:০৪:৪৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ অক্টোবর ২০২২
print news -

অনলাইন ডেক্স:  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলের জন্মদিনে তার কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তার দুই বোন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রেহানা। ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর জন্ম হয়েছিল শেখ রাসেলের। বেঁচে থাকলে মঙ্গলবার তার ৫৮ বছর পূর্ণ হত। ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার করে যে ঘাতক চক্র, ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র রাসেলকেও সেদিন তারা রেহাই দেয়নি।

তখন বিদেশে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। বঙ্গবন্ধুকে জন্মস্থান গোপালগঞ্জের টুঙ্গীপাড়ায় দাফন করা হলেও রাসেলসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের ঢাকার বনানী কবরস্থানে দাফন করা হয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট ১১ বছরের শিশু শেখ রাসেলকেও রেহাই দেয়নি ঘাতক চক্র।

শেখ রাসেলের জন্মদিবস এ বছর দ্বিতীয়বারের মত ‘শেখ রাসেল দিবস’ হিসেবে উদযাপন করা হচ্ছে রাষ্ট্রীয়ভাবে। ‘শেখ রাসেল নির্মলতার প্রতীক, দুরন্ত, প্রাণবন্ত, নির্ভীক’ প্রতিপাদ্যে সারা দেশে পালিত হচ্ছে নানা কর্মসূচি।

দিনটি উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার ভোরে ছোট বোন শেখ রেহানাকে সঙ্গে নিয়ে বনানী কবরস্থানে যান। সেখানে তারা শেখ রাসেলের পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের কবর জিয়ারত ও মোনাজাত করেন। গোলাপের পাপড়ি ছিটিয়ে শ্রদ্ধা জানান হারানো স্বজনদের স্মৃতির প্রতি।

পরে সকাল ৯টার দিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, শাজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সুবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আবদুস সবুর, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য আব্দুল আওয়াল শামীম, আনোয়ার হোসেন, নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরীসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বনানীতে গিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং মিলাদে অংশ নেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সকলকে শেখ রাসেলের বিয়োগ বেদনাকে হৃদয়ে ধারণ করার আহ্বান জানান। এ সময় এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপি এদেশের রাজনীতির জন্য বিষফোঁড়া। দেশের নিরাপত্তা, গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা এবং আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় বিএনপি বড় অন্তরায়।

‘শেখ রাসেল দিবস’ উপলক্ষে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ উপ কমিটি ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে দুস্থদের মাঝে ভ্যানগাড়ি বিতরণ এবং আলোচনা সভার আয়োজন করেছে।