০৪:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। ১০টি ইউনিয়নে ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত

print news -

বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। ১০টি ইউনিয়নে ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত

এম.এ ওমর:

সিলেটের বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। এতে বন্যা পরিস্থিতির দিন দিন অবনতি হচ্ছে। গত কয়েক দিনের ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের সবকটি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে সিলেটের সীমান্তবর্তী বিয়ানীবাজার উপজেলার বেশকিছু পরিবার এরইমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে।

বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী শামীম জানান, বয়িানীবাজার উপজলোয় ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি হয়েছেন ১৭ হাজার ৭শত জন। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে

৬৭টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে ১৩৫ জন আশ্রয় নিয়েছেন। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে বৃষ্টি হয়েছে ১৫৩ মিলিমিটার। মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৪৪ মিলিমিটার।

অন্যদিকে, ভারতের চেরাপুঞ্জিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে দেশটির আবহাওয়া অফিস।

ট্যাগঃ

কোটা সংস্কার এর দাবিতে আন্দলনরত শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত প্রধানমন্ত্রী: পলক

বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। ১০টি ইউনিয়নে ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০১:১২:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪
print news -

বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। ১০টি ইউনিয়নে ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত

এম.এ ওমর:

সিলেটের বিয়ানীবাজারে নদ-নদী ও হাওরে হু হু করে বাড়ছে পানি। এতে বন্যা পরিস্থিতির দিন দিন অবনতি হচ্ছে। গত কয়েক দিনের ভারী বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেটের সবকটি নদ-নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢলে সিলেটের সীমান্তবর্তী বিয়ানীবাজার উপজেলার বেশকিছু পরিবার এরইমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে।

বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী শামীম জানান, বয়িানীবাজার উপজলোয় ৫৪টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। পানিবন্দি হয়েছেন ১৭ হাজার ৭শত জন। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে

৬৭টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এর মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন আশ্রয়কেন্দ্রে ১৩৫ জন আশ্রয় নিয়েছেন। আবহাওয়া অধিদফতর বলছে, ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে বৃষ্টি হয়েছে ১৫৩ মিলিমিটার। মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে সকাল ৯টা পর্যন্ত তিন ঘণ্টায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ছিল ৪৪ মিলিমিটার।

অন্যদিকে, ভারতের চেরাপুঞ্জিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে দেশটির আবহাওয়া অফিস।