০৫:২৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বই উৎসব উদ্বোধন করলেন মেয়র আনোয়ারুজ্জামান

print news -

বই উৎসব উদ্বোধন করলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।   নতুন বছরে নতুন বই, বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় খুদে শিক্ষার্থীদের আনন্দে আত্মহারা। বছরে শুরুতে বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই হাতে পেয়েই বাধভাঙ্গা উল্লাস। নতুন বই দেওয়ার এ আয়োজনকে শিক্ষার্থী আর শিক্ষকরা উৎসবের মতই পালন করছেন। নতুন বইগুলো হাতে পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের সেকি বাধভাঙ্গা উল্লাস। বই হাতে পেয়েই আনন্দে আত্মহারা। প্রতিবছরের মতো এবারো নতুন বছরে নতুন বইয়ে উৎসবে শিক্ষার্থীরা। আজ বছরে শুরুতে সকাল থেকে খুদে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর স্কুল প্রাঙ্গণ। উদ্দেশ্য, নতুন বই পাওয়া। নতুন বছরের প্রথম দিন, তাই আনন্দটাও ছিল বেশি। খুদে শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-অভিভাবকরাও পাঠ্যপুস্তক উৎসবে শামিল হয়েছেন সিলেট নগরীর ৮নং ওয়ার্ডস্থ আখালিয়া নতুন বাজার বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। সোমবার (০১ জানুয়ারি) আখালিয়া বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে খুদে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক, জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বেলা ১১টার পর রঙ বেরঙের বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন সিলেট সিটি কোর্পোরশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বই উৎসব উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, নতুন বছরের নতুন বই হাতে নিয়ে গন্ধ শুঁকে শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাবে, তাতে আমরা সফল হয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগের কারণে এ সফলতা। তিনি বলেন, সারাদেশের মতো বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় বই উৎসব পালন । বছরের শুরুতে সিলেটে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন বই পাওয়াতে সকলে খুশি।  আশা করি সকলে নতুন বই পেয়ে পড়ায় মনোযোগী হবে। তিনি আরোও  বলেন আগামী দিনে বাংলাদেশ যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখে, আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছানোর যে পথ, সেখানে পৌঁছানোর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পাথেয় আমাদের শিক্ষা। এবং সেই শিক্ষার উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ।

নৌকার বিজয়ে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসবে সিলেট-২ আসন : শফিক চৌধুরী

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত বক্তব্য রাখেন-নগরীর ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জগদীশ চন্দ্র দাস বলেন, দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করতে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আর শিক্ষার মূল ভিত্তি হল প্রাথমিক শিক্ষা।শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আমি তোমাদের অনুরোধ করব ভালোভাবে লেখাপড়া করে ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে হবে। যাতে করে বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া সোনার বাংলা গড়তে পারি। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর রেবেকা বেগম বেনু।

আখালিয়া বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষাক অর্জুন চন্দ্র দাশ এর সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক শিমুল চক্রবর্তী এর পরিচালন,শুরতে পবিত্র কোরআন থেকে তেরাওয়াত করেন-ছাত্র মোঃ সুজন আহমদ-এবং গ্রীতা পাঠন করেন শ্রাবন্তী রানি দাস।

অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন,শিক্ষা পরামর্শক সিটি কর্পোরেশন অনীর কৃষ্ণ মজুন্দার, শিক্ষা কর্মকর্তা নেহার রঞ্জন পুরকায়স্থ, বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিক কমি সদস্য নুরুজ্জামান শাহজাহান, নজরুল ইসলাম নজুসহ বিভিন্ন অতিথি বৃন্দ।   এরপরই হাতে হাতে বই দেওয়া শুরু হয় মঞ্চ থেকে। নতুন বই হাতে হাত উঁচিয়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে শিক্ষার্থীরা। নতুন বই পেয়ে গন্ধ শুঁকে ঢাক-ঢোলের তালে মাঠজুড়ে ছুটোছুটি করছিল শিক্ষার্থীরা।

বই উৎসব উদ্বোধন করলেন মেয়র আনোয়ারুজ্জামান

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৭:১৮:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪
print news -

বই উৎসব উদ্বোধন করলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।   নতুন বছরে নতুন বই, বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় খুদে শিক্ষার্থীদের আনন্দে আত্মহারা। বছরে শুরুতে বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নতুন বই হাতে পেয়েই বাধভাঙ্গা উল্লাস। নতুন বই দেওয়ার এ আয়োজনকে শিক্ষার্থী আর শিক্ষকরা উৎসবের মতই পালন করছেন। নতুন বইগুলো হাতে পাওয়ার পর শিক্ষার্থীদের সেকি বাধভাঙ্গা উল্লাস। বই হাতে পেয়েই আনন্দে আত্মহারা। প্রতিবছরের মতো এবারো নতুন বছরে নতুন বইয়ে উৎসবে শিক্ষার্থীরা। আজ বছরে শুরুতে সকাল থেকে খুদে শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখর স্কুল প্রাঙ্গণ। উদ্দেশ্য, নতুন বই পাওয়া। নতুন বছরের প্রথম দিন, তাই আনন্দটাও ছিল বেশি। খুদে শিক্ষার্থী থেকে শুরু করে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-অভিভাবকরাও পাঠ্যপুস্তক উৎসবে শামিল হয়েছেন সিলেট নগরীর ৮নং ওয়ার্ডস্থ আখালিয়া নতুন বাজার বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। সোমবার (০১ জানুয়ারি) আখালিয়া বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে খুদে শিক্ষার্থী, শিক্ষক, অভিভাবক, জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বেলা ১১টার পর রঙ বেরঙের বেলুন ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে উৎসবের উদ্বোধন করেন সিলেট সিটি কোর্পোরশনের মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী।

বই উৎসব উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী বলেন, নতুন বছরের নতুন বই হাতে নিয়ে গন্ধ শুঁকে শিক্ষার্থীরা স্কুলে যাবে, তাতে আমরা সফল হয়েছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগের কারণে এ সফলতা। তিনি বলেন, সারাদেশের মতো বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় বই উৎসব পালন । বছরের শুরুতে সিলেটে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন বই পাওয়াতে সকলে খুশি।  আশা করি সকলে নতুন বই পেয়ে পড়ায় মনোযোগী হবে। তিনি আরোও  বলেন আগামী দিনে বাংলাদেশ যে সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখে, আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছানোর যে পথ, সেখানে পৌঁছানোর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পাথেয় আমাদের শিক্ষা। এবং সেই শিক্ষার উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার ।

নৌকার বিজয়ে উন্নয়নের জোয়ারে ভাসবে সিলেট-২ আসন : শফিক চৌধুরী

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত বক্তব্য রাখেন-নগরীর ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জগদীশ চন্দ্র দাস বলেন, দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করতে হলে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। আর শিক্ষার মূল ভিত্তি হল প্রাথমিক শিক্ষা।শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আমি তোমাদের অনুরোধ করব ভালোভাবে লেখাপড়া করে ভালো মানুষ হিসেবে নিজেকে তৈরি করতে হবে। যাতে করে বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া সোনার বাংলা গড়তে পারি। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর রেবেকা বেগম বেনু।

আখালিয়া বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষাক অর্জুন চন্দ্র দাশ এর সভাপতিত্বে ও সহকারী শিক্ষক শিমুল চক্রবর্তী এর পরিচালন,শুরতে পবিত্র কোরআন থেকে তেরাওয়াত করেন-ছাত্র মোঃ সুজন আহমদ-এবং গ্রীতা পাঠন করেন শ্রাবন্তী রানি দাস।

অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন,শিক্ষা পরামর্শক সিটি কর্পোরেশন অনীর কৃষ্ণ মজুন্দার, শিক্ষা কর্মকর্তা নেহার রঞ্জন পুরকায়স্থ, বীরেশ চন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিক কমি সদস্য নুরুজ্জামান শাহজাহান, নজরুল ইসলাম নজুসহ বিভিন্ন অতিথি বৃন্দ।   এরপরই হাতে হাতে বই দেওয়া শুরু হয় মঞ্চ থেকে। নতুন বই হাতে হাত উঁচিয়ে আনন্দ-উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে শিক্ষার্থীরা। নতুন বই পেয়ে গন্ধ শুঁকে ঢাক-ঢোলের তালে মাঠজুড়ে ছুটোছুটি করছিল শিক্ষার্থীরা।