১২:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ জুলাই ২০২৪, ১০ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টানা চার ম্যাচ জয়ে র পর ফাইনালে ই হেরে গেল বাংলাদেশ

print news -

খেলা ডেস্ক:  প্রথম পর্বে চার ম্যাচের সবগুলো জয়ী বাংলাদেশ ফাইনালে এসে বোলিং ও ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ হলো পুরোপুরি। তাদের অনায়াসে হারিয়ে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ট্রফি জিতল শ্রীলঙ্কা।

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুক্রবার শিরোপা লড়াইয়ে ৩৬ রানে হারে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কা ২০ ওভারে ৩ উইকেটে করে ১৪৮ রান। বাংলাদেশ ৮ উইকেট হারিয়ে যেতে পারে ১১২ পর্যন্ত। প্রথম পর্বে শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান, দুই দলকেই দুবার করে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। ফাইনালে আর পেরে উঠল না তারা।

অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ফাইনালের সেরা দেউমি বিহানগা ভিজেরাত্নেকে। ওপেনিংয়ে নেমে ৪২ বলে ৪টি ছক্কা ও ২টি চারে ৪৯ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। পরে অফ স্পিনে ৪ ওভারে স্রেফ ১৩ রানে নেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৮৭ বলে ১০৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে শ্রীলঙ্কার বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন ভিজেরাত্নেকে ও নেথামি পুর্না সেনারাত্নাকে। ভিজেরাত্নেকে ফিফটির আগে ফিরলেও সেনারাত্নাকে ৫৭ বলে ৮ চারে ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

বাংলাদেশের হয়ে নিশিতা আক্তার ৪ ওভারে দেন ৪০ রান। তিনিসহ একটি করে উইকেট পান রেবেয়া খাতুন ও জান্নাতুল মাওয়া।রান তাড়ায় শুরু থেকেই নিয়মিত উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ২৩ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে তারা। সেখান থেকে কোনোমতে একশ ছাড়াতে পারে দল।

রাবেয়া সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন ২৯ বলে ৪টি চারের সাহায্যে। আর কেউ ১৫ ছাড়াতে পারেননি।  শ্রীলঙ্কার হয়ে ভিজেরাত্নেকের ৩টি ছাড়া রিসমি সাঞ্জনা ও মাধুশানি হেরাথ নেন ২টি করে উইকেট।

সুত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

ট্যাগঃ

নরসিংদী কারাগার থেকে পালানো জঙ্গি  সদস্য সোনারগাঁওয়ে গ্রেপ্তার

টানা চার ম্যাচ জয়ে র পর ফাইনালে ই হেরে গেল বাংলাদেশ

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৪:৩৬:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
print news -

খেলা ডেস্ক:  প্রথম পর্বে চার ম্যাচের সবগুলো জয়ী বাংলাদেশ ফাইনালে এসে বোলিং ও ব্যাটিংয়ে ব্যর্থ হলো পুরোপুরি। তাদের অনায়াসে হারিয়ে মেয়েদের অনূর্ধ্ব-১৯ ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ট্রফি জিতল শ্রীলঙ্কা।

কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুক্রবার শিরোপা লড়াইয়ে ৩৬ রানে হারে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কা ২০ ওভারে ৩ উইকেটে করে ১৪৮ রান। বাংলাদেশ ৮ উইকেট হারিয়ে যেতে পারে ১১২ পর্যন্ত। প্রথম পর্বে শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান, দুই দলকেই দুবার করে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। ফাইনালে আর পেরে উঠল না তারা।

অলরাউন্ড নৈপুণ্যে ফাইনালের সেরা দেউমি বিহানগা ভিজেরাত্নেকে। ওপেনিংয়ে নেমে ৪২ বলে ৪টি ছক্কা ও ২টি চারে ৪৯ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। পরে অফ স্পিনে ৪ ওভারে স্রেফ ১৩ রানে নেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৮৭ বলে ১০৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে শ্রীলঙ্কার বড় সংগ্রহের ভিত গড়ে দেন ভিজেরাত্নেকে ও নেথামি পুর্না সেনারাত্নাকে। ভিজেরাত্নেকে ফিফটির আগে ফিরলেও সেনারাত্নাকে ৫৭ বলে ৮ চারে ৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

বাংলাদেশের হয়ে নিশিতা আক্তার ৪ ওভারে দেন ৪০ রান। তিনিসহ একটি করে উইকেট পান রেবেয়া খাতুন ও জান্নাতুল মাওয়া।রান তাড়ায় শুরু থেকেই নিয়মিত উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ২৩ রানের মধ্যে ৪ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে অনেকটাই ছিটকে পড়ে তারা। সেখান থেকে কোনোমতে একশ ছাড়াতে পারে দল।

রাবেয়া সর্বোচ্চ ৩১ রান করেন ২৯ বলে ৪টি চারের সাহায্যে। আর কেউ ১৫ ছাড়াতে পারেননি।  শ্রীলঙ্কার হয়ে ভিজেরাত্নেকের ৩টি ছাড়া রিসমি সাঞ্জনা ও মাধুশানি হেরাথ নেন ২টি করে উইকেট।

সুত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম