০৪:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ

print news -

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হচ্ছে

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির পুনঃখননের মাধ্যমে সিলেটের বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হচ্ছে। গ্যাসকূপটি ২০১৭ সালে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি চলতি বছর দুটি কূপ পুনঃখননের মাধ্যমে এরইমধ্যে দেড় কোটি ঘনফুট গ্যাস সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করেছে। অদ্য ২৭ নভেম্বর এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

দ্রুতগতিতে একের পর এক প্রক্রিয়াগুলো শেষ করে উৎপাদন সক্ষম করে তোলা হয়েছে সিলেটের বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ। পরিত্যক্ত ঘোষণার পাঁচ বছর পর ১০ সেপ্টেম্বর এই কূপের পুনঃখনন শুরু হয়।

সিলেট গ্যাস কোম্পানী লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) মো. আব্দুল জলিল প্রামাণিক বলেন, ১০ নভেম্বর গ্যাস প্রাপ্তি নিশ্চিত হওয়ার পর দ্রুত সময়ের মধ্যে জাতীয় গ্রিডে কূপের গ্যাস সরবরাহের জন্য রাতদিন পরিশ্রম করছেন সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি ও বাপেক্সের প্রকৌশলীরা।

দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ চাপের গ্যাসকূপ বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ থেকে রোববার রাতের মধ্যে গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করার আপ্রাণ চেষ্টা চলছে বলে জানান, সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মিজানুর রহমান। কাতার বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচী | FIFA World Cup 2022 Schedule| ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচি

সিলেট কোম্পানির চলতি বছর দুটি কূপ পুনঃখননের মাধ্যমে এরইমধ্যে দেড় কোটি ঘনফুট গ্যাস সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করেছে। সিলেট গ্যাস ফিল্ড, বাপেক্স ও বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি ২০২৫ সালের মধ্যে ব্যাপক গ্যাস উত্তোলনের মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের ৪৬টি কূপ খনন ও পুনঃখননের মাধ্যমে ৬১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদনে এগিয়ে যাচ্ছে কোম্পানি তিনটি।

সিলেট গ্যাস ফিল্ড লিমিটেড (এসজিএফএল) সূত্রে জানা গেছে, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ১ নম্বর কূপ থেকে ১৯৯১ সালে গ্যাস তোলা শুরু হয়। ২০১৪ সালে তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৬ সালে আবার উত্তোলন শুরু হলেও ওই বছরের শেষ দিকে আবারও তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৭ সালের শুরু থেকেই কূপটি পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। এরপর বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন (বাপেক্স) ওই কূপে অনুসন্ধান কাজ চালিয়ে গ্যাসের মজুত পায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১০ সেপ্টেম্বর ওই কূপে নতুন করে পুনঃখননকাজ (ওয়ার্ক ওভার) শুরু হয়। কূপে গ্যাস প্রাপ্তি নিশ্চিতের পর গত ১০ নভেম্বর থেকে গ্যাসের চাপ পরীক্ষা শেষে কূপ থেকে দ্রুত জাতীয় সঞ্চালন লাইনে গ্যাস দেয়ার জন্য প্রস্তুত করা হয়।

কোটা সংস্কার এর দাবিতে আন্দলনরত শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত প্রধানমন্ত্রী: পলক

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০২:১৫:৪৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২
print news -

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হচ্ছে

বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির পুনঃখননের মাধ্যমে সিলেটের বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ থেকে দৈনিক ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে যুক্ত হচ্ছে। গ্যাসকূপটি ২০১৭ সালে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি চলতি বছর দুটি কূপ পুনঃখননের মাধ্যমে এরইমধ্যে দেড় কোটি ঘনফুট গ্যাস সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করেছে। অদ্য ২৭ নভেম্বর এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

দ্রুতগতিতে একের পর এক প্রক্রিয়াগুলো শেষ করে উৎপাদন সক্ষম করে তোলা হয়েছে সিলেটের বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ। পরিত্যক্ত ঘোষণার পাঁচ বছর পর ১০ সেপ্টেম্বর এই কূপের পুনঃখনন শুরু হয়।

সিলেট গ্যাস কোম্পানী লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) মো. আব্দুল জলিল প্রামাণিক বলেন, ১০ নভেম্বর গ্যাস প্রাপ্তি নিশ্চিত হওয়ার পর দ্রুত সময়ের মধ্যে জাতীয় গ্রিডে কূপের গ্যাস সরবরাহের জন্য রাতদিন পরিশ্রম করছেন সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি ও বাপেক্সের প্রকৌশলীরা।

দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ চাপের গ্যাসকূপ বিয়ানীবাজার-১ নম্বর কূপ থেকে রোববার রাতের মধ্যে গ্যাস জাতীয় সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করার আপ্রাণ চেষ্টা চলছে বলে জানান, সিলেট গ্যাস ফিল্ডস লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মিজানুর রহমান। কাতার বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচী | FIFA World Cup 2022 Schedule| ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচি

সিলেট কোম্পানির চলতি বছর দুটি কূপ পুনঃখননের মাধ্যমে এরইমধ্যে দেড় কোটি ঘনফুট গ্যাস সঞ্চালন লাইনে সরবরাহ করেছে। সিলেট গ্যাস ফিল্ড, বাপেক্স ও বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি ২০২৫ সালের মধ্যে ব্যাপক গ্যাস উত্তোলনের মহাপরিকল্পনা হাতে নিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে দেশের ৪৬টি কূপ খনন ও পুনঃখননের মাধ্যমে ৬১৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদনে এগিয়ে যাচ্ছে কোম্পানি তিনটি।

সিলেট গ্যাস ফিল্ড লিমিটেড (এসজিএফএল) সূত্রে জানা গেছে, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ১ নম্বর কূপ থেকে ১৯৯১ সালে গ্যাস তোলা শুরু হয়। ২০১৪ সালে তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৬ সালে আবার উত্তোলন শুরু হলেও ওই বছরের শেষ দিকে আবারও তা বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৭ সালের শুরু থেকেই কূপটি পরিত্যক্ত অবস্থায় ছিল। এরপর বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন (বাপেক্স) ওই কূপে অনুসন্ধান কাজ চালিয়ে গ্যাসের মজুত পায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১০ সেপ্টেম্বর ওই কূপে নতুন করে পুনঃখননকাজ (ওয়ার্ক ওভার) শুরু হয়। কূপে গ্যাস প্রাপ্তি নিশ্চিতের পর গত ১০ নভেম্বর থেকে গ্যাসের চাপ পরীক্ষা শেষে কূপ থেকে দ্রুত জাতীয় সঞ্চালন লাইনে গ্যাস দেয়ার জন্য প্রস্তুত করা হয়।