০৪:১৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হচ্ছেন শমসের মবিন চৌধুরী

print news -

নিউজ ডেস্ক:  সিলেট-৬ আসন থেকে প্রার্থী হচ্ছেন তৃণমূল বিএনপি’র চেয়ারপারসন শমসের মবিন চৌধুরী। নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে এরই মধ্যে তিনি সিলেট-৬ আসনের গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার সফর করেছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে তার নিজ এলাকায় উঠান বৈঠক করে প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানান দিয়েছেন। এর আগে রোববার নিজ বাসভবনে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে মতবিনিময়কালেও একই ঘোষণা দেন। আর এটি হচ্ছে তার প্রার্থী হওয়ার প্রথম আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

এবার সিলেটে এসে প্রথমে জকিগঞ্জে ফুলতলী (র.) মাজার জিয়ারত করেছেন। সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসনটি হচ্ছে ভিআইপি আসন। এ আসনের বর্তমান এমপি সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত এক বছর ধরে নাহিদও এলাকায় ঘনঘন সফর করছেন।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগ থেকে কানাডা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সরওয়ার হোসেনও প্রার্থী হতে চাচ্ছেন। বিএনপি থেকে গত নির্বাচনে এ আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন শিল্পপতি ফয়সল আহমদ চৌধুরী। শমসের মবিন চৌধুরী ওয়ান ইলেভেনের পর থেকে সিলেটের রাজনীতিতে বিএনপি’র সহ-সভাপতি হিসেবে সক্রিয় ছিলেন। তিনি ছিলেন সিলেট বিএনপি’র শীর্ষ নেতা। পরবর্তীতে তিনি বিএনপি’র রাজনীতি ছেড়ে নিস্ক্রিয় হয়ে পড়েন। ২০১৮ সালের ৮ই ডিসেম্বর বিকল্পধারা বাংলাদেশে যোগ দেন। পরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ আসনে বিকল্পধারার মনোনয়নে প্রার্থী হন। নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে সমর্থন জানিয়ে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এবার নির্বাচনকে সামনে রেখে তৃণমূল বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন। তিনি দলের চেয়ারপারসনও মনোনীত হয়েছেন। চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ার পর সিলেট-১ ও সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হওয়ায় রাজনীতিতে গুঞ্জন দেখা দেয়।

এসময় তিনি প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে বলেন, তৃণমূল বিএনপি নির্বাচনমুখী দল। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা অংশ নেবো এবং ৩০০ আসনে তৃণমূল বিএনপি প্রার্থী দেবে। তিনি বলেন, আমার রাজনীতি মানুষের কল্যাণের জন্য। সব সময় আমি তৃণমূলের মানুষকে ভালোবাসি। তাদের সুখ-দুঃখের সারথি হয়ে পাশে থাকবো। বৈঠকে বিয়ানীবাজার মৎস্যজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মানিক মিয়া, তৃণমূল বিএনপি’র সিলেট জেলা শাখার আহ্বায়ক এম এ হান্নান, গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার আহ্বায়ক ছানা মিয়াসহ দলটির কর্মী-সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সমশের মবিন চৌধুরী ভাদেশ্বর মোকামবাজার শাহ পুতলা জামে মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় করেন। স্থানীয় মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় ও কুশল বিনিময় করেন। পরে মৎস্য সমিতির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। রাতে গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের কোনারচর এলাকায় তিনি উঠান বৈঠক করেন।

গোলাপগঞ্জ উপজেলা তৃণমূল বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক সানাউর রহমান জানিয়েছেন, সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শমসের মবিন চৌধুরী। সে লক্ষ্যে তিনি নিজ এলাকায় এসে প্রস্তুতি চালাচ্ছেন। তাকে ঘিরে সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসাহ দেখা দিয়েছে।

তিনি বলেন, শমসের মবিন চৌধুরী একটি দলের প্রধান ও একজন সাবেক কুটনীতিক। তার এই ঘোষণা সাধারণ মানুষ ইতিবাচক হিসেবে গ্রহণ করেছে। আমরাও চাই তিনি আগামী নির্বাচনে নিজ এলাকা থেকে নির্বাচন করুন। এলাকার মানুষ তাকে হতাশ করবেন না। এদিকে- দলের নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, শমসের মবিন চৌধুরী ও তৃণমূল বিএনপি’র নেতা সিলেটের হযরত শাহজালাল (রহ.) ও হযরত শাহপরান (রহ.)-এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন।

জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হচ্ছেন শমসের মবিন চৌধুরী

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৪:৫৮:১৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০২৩
print news -

নিউজ ডেস্ক:  সিলেট-৬ আসন থেকে প্রার্থী হচ্ছেন তৃণমূল বিএনপি’র চেয়ারপারসন শমসের মবিন চৌধুরী। নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে এরই মধ্যে তিনি সিলেট-৬ আসনের গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার সফর করেছেন। আনুষ্ঠানিকভাবে তার নিজ এলাকায় উঠান বৈঠক করে প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানান দিয়েছেন। এর আগে রোববার নিজ বাসভবনে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে মতবিনিময়কালেও একই ঘোষণা দেন। আর এটি হচ্ছে তার প্রার্থী হওয়ার প্রথম আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

এবার সিলেটে এসে প্রথমে জকিগঞ্জে ফুলতলী (র.) মাজার জিয়ারত করেছেন। সিলেট-৬ (গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজার) আসনটি হচ্ছে ভিআইপি আসন। এ আসনের বর্তমান এমপি সাবেক শিক্ষামন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত এক বছর ধরে নাহিদও এলাকায় ঘনঘন সফর করছেন।

এ ছাড়া আওয়ামী লীগ থেকে কানাডা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি সরওয়ার হোসেনও প্রার্থী হতে চাচ্ছেন। বিএনপি থেকে গত নির্বাচনে এ আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন শিল্পপতি ফয়সল আহমদ চৌধুরী। শমসের মবিন চৌধুরী ওয়ান ইলেভেনের পর থেকে সিলেটের রাজনীতিতে বিএনপি’র সহ-সভাপতি হিসেবে সক্রিয় ছিলেন। তিনি ছিলেন সিলেট বিএনপি’র শীর্ষ নেতা। পরবর্তীতে তিনি বিএনপি’র রাজনীতি ছেড়ে নিস্ক্রিয় হয়ে পড়েন। ২০১৮ সালের ৮ই ডিসেম্বর বিকল্পধারা বাংলাদেশে যোগ দেন। পরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৬ আসনে বিকল্পধারার মনোনয়নে প্রার্থী হন। নির্বাচনের আগে আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে সমর্থন জানিয়ে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। এবার নির্বাচনকে সামনে রেখে তৃণমূল বিএনপিতে যোগ দিয়েছেন। তিনি দলের চেয়ারপারসনও মনোনীত হয়েছেন। চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ার পর সিলেট-১ ও সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হওয়ায় রাজনীতিতে গুঞ্জন দেখা দেয়।

এসময় তিনি প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে বলেন, তৃণমূল বিএনপি নির্বাচনমুখী দল। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমরা অংশ নেবো এবং ৩০০ আসনে তৃণমূল বিএনপি প্রার্থী দেবে। তিনি বলেন, আমার রাজনীতি মানুষের কল্যাণের জন্য। সব সময় আমি তৃণমূলের মানুষকে ভালোবাসি। তাদের সুখ-দুঃখের সারথি হয়ে পাশে থাকবো। বৈঠকে বিয়ানীবাজার মৎস্যজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মানিক মিয়া, তৃণমূল বিএনপি’র সিলেট জেলা শাখার আহ্বায়ক এম এ হান্নান, গোলাপগঞ্জ উপজেলা শাখার আহ্বায়ক ছানা মিয়াসহ দলটির কর্মী-সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সমশের মবিন চৌধুরী ভাদেশ্বর মোকামবাজার শাহ পুতলা জামে মসজিদে জোহরের নামাজ আদায় করেন। স্থানীয় মুসল্লিদের সঙ্গে মতবিনিময় ও কুশল বিনিময় করেন। পরে মৎস্য সমিতির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। রাতে গোলাপগঞ্জ উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের কোনারচর এলাকায় তিনি উঠান বৈঠক করেন।

গোলাপগঞ্জ উপজেলা তৃণমূল বিএনপি’র যুগ্ম আহ্বায়ক সানাউর রহমান জানিয়েছেন, সিলেট-৬ আসনে প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন শমসের মবিন চৌধুরী। সে লক্ষ্যে তিনি নিজ এলাকায় এসে প্রস্তুতি চালাচ্ছেন। তাকে ঘিরে সাধারণ মানুষের মধ্যে উৎসাহ দেখা দিয়েছে।

তিনি বলেন, শমসের মবিন চৌধুরী একটি দলের প্রধান ও একজন সাবেক কুটনীতিক। তার এই ঘোষণা সাধারণ মানুষ ইতিবাচক হিসেবে গ্রহণ করেছে। আমরাও চাই তিনি আগামী নির্বাচনে নিজ এলাকা থেকে নির্বাচন করুন। এলাকার মানুষ তাকে হতাশ করবেন না। এদিকে- দলের নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, শমসের মবিন চৌধুরী ও তৃণমূল বিএনপি’র নেতা সিলেটের হযরত শাহজালাল (রহ.) ও হযরত শাহপরান (রহ.)-এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন।