১০:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের হাতে ধর্ষণের শিকার তরুণী

ধর্ষণের শিকার তরুণী

print news -

সিলেট অফিস: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের এক চিকিৎসকের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়ে গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন এক তরুণী। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার(১৭ অক্টোবর) মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রোববার ভুক্তভোগী তরুণী কোতোয়ালি থানায় ডাক্তারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম ডা. আর কে এস রয়েল। তিনি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ও সাইকিয়াট্রি বিভাগের প্রধান।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রোববার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী তরুণী ওই চিকিৎসকের চেম্বারে গিয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন। এ সময় চিৎকার দিয়ে বলেন ‘আমাকে এই মুহূর্তে আপনার বিয়ে করতে হবে। আমার গর্ভে আপনার সন্তান রয়েছে।

পুলিশের উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বলেন, ভুক্তভোগী তরুণী ২০১৮ সাল থেকে সিলেটের এ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিতেন। একপর্যায়ে ভুক্তভোগী তরুণীর প্রতি তিনি আসক্ত হয়ে পড়েন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তাকে ধর্ষণ করেন। তবে ভুক্তভোগী মামলা করলে নগরির কাজলশাহ ল্যাবএইড ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে ডা. আর কে এস রয়েলকে গ্রেপ্তার করা হয়। মহানগর পুলিশের সিটিএসবি বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত দায়িত্বে) সুদীপ দাশ বলেন, ভুক্তভোগী তরুণীর করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

সিলেটে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের হাতে ধর্ষণের শিকার তরুণী

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০১:৩৩:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২
print news -

সিলেট অফিস: সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের এক চিকিৎসকের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়ে গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন এক তরুণী। এই ঘটনায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার(১৭ অক্টোবর) মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রোববার ভুক্তভোগী তরুণী কোতোয়ালি থানায় ডাক্তারের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তির নাম ডা. আর কে এস রয়েল। তিনি সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ও সাইকিয়াট্রি বিভাগের প্রধান।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রোববার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী তরুণী ওই চিকিৎসকের চেম্বারে গিয়ে চিৎকার-চেঁচামেচি শুরু করেন। এ সময় চিৎকার দিয়ে বলেন ‘আমাকে এই মুহূর্তে আপনার বিয়ে করতে হবে। আমার গর্ভে আপনার সন্তান রয়েছে।

পুলিশের উপ-কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বলেন, ভুক্তভোগী তরুণী ২০১৮ সাল থেকে সিলেটের এ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা নিতেন। একপর্যায়ে ভুক্তভোগী তরুণীর প্রতি তিনি আসক্ত হয়ে পড়েন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময় তাকে ধর্ষণ করেন। তবে ভুক্তভোগী মামলা করলে নগরির কাজলশাহ ল্যাবএইড ডায়াগনস্টিক সেন্টার থেকে ডা. আর কে এস রয়েলকে গ্রেপ্তার করা হয়। মহানগর পুলিশের সিটিএসবি বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম শাখার অতিরিক্ত দায়িত্বে) সুদীপ দাশ বলেন, ভুক্তভোগী তরুণীর করা মামলায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।