০৪:২৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীমঙ্গ লে হোটেল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লা শ উদ্ধার

print news -

নিউজ ডেস্ক:   মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে হোটেল থেকে এক অজ্ঞা ত ব্যক্তির অর্ধগলিত লা শ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাত ৮টায় শহরের নতুন বাজার এলাকায় মুন হোটেল থেকে এ লা শ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৮ নভেম্বর তিন ব্য ক্তি ওই হোটেলের একটি কক্ষ ভাড়া নেয়। পরদিন দু জন চেক আউট করে চলে যায়। পরে হোটেল বয় ওই কক্ষ তল্লাশি না করে ওই কক্ষের দরজা তালা মেরে দেন। সোমবার ওই কক্ষ থেকে দু র্গন্ধ বের হলে কক্ষের তালা খুলে খাটের নিচে একজন পুরুষের অর্ধগলিত লাশ দেখতে পান হোটেলের ম্যানেজার। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘঠনাস্থলে এসে লা শ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করেন।

এ সময় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি দল মৌলভীবাজার থেকে এসে লা শের পরিচয় সনাক্তের জন্য হাতের আঙুলের চাপ নিলে লা শ পচনের কারণে আঙুলের চাপ ম্যাচ করেনি বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার তদন্তের স্বার্থে মৃত ব্যক্তির সঙ্গে থাকা দু-জনের পরিচয় জানাতে অস্বীকার করে বলেন, পুলিশ লা শ উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, লা শ পচনের কারণে শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন বুঝা যায় নাই, তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে এটি হ ত্যা না স্বাভাবিক মৃ ত্যু।

উল্লেখ্য, গত ২১ অক্টোবর ওই হোটেল থেকে একজন ব্যক্তির ঝুলন্ত লা শ উদ্ধার করে পুলিশ।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

আনোয়ারুল আজীমকে খুন করতে ৫ কোটি টাকার চুক্তি

শ্রীমঙ্গ লে হোটেল থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লা শ উদ্ধার

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৩:৫০:১২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩
print news -

নিউজ ডেস্ক:   মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে হোটেল থেকে এক অজ্ঞা ত ব্যক্তির অর্ধগলিত লা শ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাত ৮টায় শহরের নতুন বাজার এলাকায় মুন হোটেল থেকে এ লা শ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ২৮ নভেম্বর তিন ব্য ক্তি ওই হোটেলের একটি কক্ষ ভাড়া নেয়। পরদিন দু জন চেক আউট করে চলে যায়। পরে হোটেল বয় ওই কক্ষ তল্লাশি না করে ওই কক্ষের দরজা তালা মেরে দেন। সোমবার ওই কক্ষ থেকে দু র্গন্ধ বের হলে কক্ষের তালা খুলে খাটের নিচে একজন পুরুষের অর্ধগলিত লাশ দেখতে পান হোটেলের ম্যানেজার। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘঠনাস্থলে এসে লা শ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার মর্গে প্রেরণ করেন।

এ সময় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) একটি দল মৌলভীবাজার থেকে এসে লা শের পরিচয় সনাক্তের জন্য হাতের আঙুলের চাপ নিলে লা শ পচনের কারণে আঙুলের চাপ ম্যাচ করেনি বলে জানা যায়।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার তদন্তের স্বার্থে মৃত ব্যক্তির সঙ্গে থাকা দু-জনের পরিচয় জানাতে অস্বীকার করে বলেন, পুলিশ লা শ উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, লা শ পচনের কারণে শরীরে কোনো আঘাতের চিহ্ন বুঝা যায় নাই, তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট আসার পর জানা যাবে এটি হ ত্যা না স্বাভাবিক মৃ ত্যু।

উল্লেখ্য, গত ২১ অক্টোবর ওই হোটেল থেকে একজন ব্যক্তির ঝুলন্ত লা শ উদ্ধার করে পুলিশ।