০৫:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লিয়োনেল মেসির কোপের পর এবার পদক্ষেপ নিল ফিফা

print news -

খেলা ডেক্স:  লিয়োনেল মেসি কোয়ার্টার ফাইনালের পরে রেফারি মাতেউ লাহোজের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন। মাতেউকে দায়িত্ব দেওয়ার আগে ফিফার ভেবে দেখা উচিত ছিল বলে জানিয়েছিলেন। রেফারির উপর মেসির কোপের পর এবার পদক্ষেপ নিল ফিফা। মাতেউকে বাড়ি পাঠানো হচ্ছে।

আরোও পড়ুন: কাতার বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচী | FIFA World Cup 2022 Schedule| ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচি

সংবাদপত্র ‘কোপ’ জানিয়েছে, এ বারের বিশ্বকাপের আর কোনও ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে না মাতেউকে। স্পেনের রেফারিকে দেশে ফিরে যেতে বলা হয়েছে। ফিফা চায় না, সেমিফাইনাল বা ফাইনালের মতো ম্যাচে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠুক। তাই বিশ্বকাপের সেরা রেফারিদের ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দিতে চাইছে তারা।

স্পেনের রেফারি মাতেউ দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ১৫টি কার্ড দেখিয়েছেন। এর মধ্যে আটটি হলুদ কার্ড দেখেছেন আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। নেদারল্যান্ডসের ফুটবলাররা দেখেছেন ছ’টি হলুদ কার্ড এবং একটি লাল কার্ড। হলুদ কার্ডের তালিকায় মেসিও রয়েছেন। ম্যাচের মধ্যে মাতেউর সঙ্গে তর্কাতর্কি হয় মেসির। ম্যাচ শেষে আর্জেন্টিনার তারকা ফুটবলার বলেন, “রেফারি সম্পর্কে আমি কিছু বলব না। কারণ সকলের সামনে যা বলব সেটা সত্যি হবে না। আমার মনে হয় ফিফার ভেবে দেখা প্রয়োজন, এ রকম ম্যাচে এই ধরনের রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়া উচিত কি না। এমন রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়া উচিত নয়, যে কাজটার যোগ্য নয়।

ম্যাচে খেলতে নামার আগেই রেফারি নিয়ে প্রশ্ন ছিল মেসিদের মনে। সেটাও জানিয়েছেন তিনি। আর্জেন্টিনার অধিনায়ক বলেন, “রেফারির নাম দেখে ম্যাচ শুরুর আগেই আমরা ভয়ে ভয়ে ছিলাম। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এই ধরনের রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়াই উচিত নয়।

লিয়োনেল মেসির দলের গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রেফারির উপর। ম্যাচ শেষে বলেছেন, নেদারল্যান্ডসের জন্য মাতেউ নিজের সবটা দিয়ে দিয়েছিল। কোনও কারণ ছাড়াই ১০ মিনিট সংযুক্তি সময় দেওয়া হল। বক্সের বাইরে দু’তিন বার ফ্রিকিক দিল। ও চাইছিল নেদারল্যান্ডস যাতে গোল করে। ওরা তো ১২ জনে খেলছিল। আশা করছি মাতেউকে আর দেখতে হবে না। জঘন্য রেফারি।

মার্তিনেস অভিযোগ করেছেন, অকারণে সবার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন মাতেউ। তিনি বলেছেন ও বিশ্বকাপের সব থেকে খারাপ রেফারি। সেই সঙ্গে খুব উদ্ধত। ওকে কিছু বলতে গেলে খুব খারাপ ভাবে কথা বলে। আমার মনে হয় স্পেন বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় মাতেউ চেয়েছিল, আমরাও বেরিয়ে যাই।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

লিয়োনেল মেসির কোপের পর এবার পদক্ষেপ নিল ফিফা

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০২:৩৫:২১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২২
print news -

খেলা ডেক্স:  লিয়োনেল মেসি কোয়ার্টার ফাইনালের পরে রেফারি মাতেউ লাহোজের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন। মাতেউকে দায়িত্ব দেওয়ার আগে ফিফার ভেবে দেখা উচিত ছিল বলে জানিয়েছিলেন। রেফারির উপর মেসির কোপের পর এবার পদক্ষেপ নিল ফিফা। মাতেউকে বাড়ি পাঠানো হচ্ছে।

আরোও পড়ুন: কাতার বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচী | FIFA World Cup 2022 Schedule| ফিফা বিশ্বকাপ-২০২২ সময়সূচি

সংবাদপত্র ‘কোপ’ জানিয়েছে, এ বারের বিশ্বকাপের আর কোনও ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে না মাতেউকে। স্পেনের রেফারিকে দেশে ফিরে যেতে বলা হয়েছে। ফিফা চায় না, সেমিফাইনাল বা ফাইনালের মতো ম্যাচে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠুক। তাই বিশ্বকাপের সেরা রেফারিদের ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দিতে চাইছে তারা।

স্পেনের রেফারি মাতেউ দ্বিতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে ১৫টি কার্ড দেখিয়েছেন। এর মধ্যে আটটি হলুদ কার্ড দেখেছেন আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা। নেদারল্যান্ডসের ফুটবলাররা দেখেছেন ছ’টি হলুদ কার্ড এবং একটি লাল কার্ড। হলুদ কার্ডের তালিকায় মেসিও রয়েছেন। ম্যাচের মধ্যে মাতেউর সঙ্গে তর্কাতর্কি হয় মেসির। ম্যাচ শেষে আর্জেন্টিনার তারকা ফুটবলার বলেন, “রেফারি সম্পর্কে আমি কিছু বলব না। কারণ সকলের সামনে যা বলব সেটা সত্যি হবে না। আমার মনে হয় ফিফার ভেবে দেখা প্রয়োজন, এ রকম ম্যাচে এই ধরনের রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়া উচিত কি না। এমন রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়া উচিত নয়, যে কাজটার যোগ্য নয়।

ম্যাচে খেলতে নামার আগেই রেফারি নিয়ে প্রশ্ন ছিল মেসিদের মনে। সেটাও জানিয়েছেন তিনি। আর্জেন্টিনার অধিনায়ক বলেন, “রেফারির নাম দেখে ম্যাচ শুরুর আগেই আমরা ভয়ে ভয়ে ছিলাম। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে এই ধরনের রেফারিকে দায়িত্ব দেওয়াই উচিত নয়।

লিয়োনেল মেসির দলের গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রেফারির উপর। ম্যাচ শেষে বলেছেন, নেদারল্যান্ডসের জন্য মাতেউ নিজের সবটা দিয়ে দিয়েছিল। কোনও কারণ ছাড়াই ১০ মিনিট সংযুক্তি সময় দেওয়া হল। বক্সের বাইরে দু’তিন বার ফ্রিকিক দিল। ও চাইছিল নেদারল্যান্ডস যাতে গোল করে। ওরা তো ১২ জনে খেলছিল। আশা করছি মাতেউকে আর দেখতে হবে না। জঘন্য রেফারি।

মার্তিনেস অভিযোগ করেছেন, অকারণে সবার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছেন মাতেউ। তিনি বলেছেন ও বিশ্বকাপের সব থেকে খারাপ রেফারি। সেই সঙ্গে খুব উদ্ধত। ওকে কিছু বলতে গেলে খুব খারাপ ভাবে কথা বলে। আমার মনে হয় স্পেন বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় মাতেউ চেয়েছিল, আমরাও বেরিয়ে যাই।