০৪:০৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাষ্ট্রপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন সিলেটের নাহিদ

print news -

রাষ্ট্রপতি পদে শেষ মুহূর্তের আলোচনায়ও আছেন সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

রাষ্ট্রপতি পদে শেষ মুহূর্তের আলোচনায়ও আছেন সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আগামী সপ্তাহেই উক্ত পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীই দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হবেন।

বৈরাগীবাজারে তাফসীরুল কুরআন মাহফিল আগামী ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারী

শুরু থেকে রাষ্ট্রপতি পদে ১০ জনেরও বেশি নাম আলোচনায় ছিল। পরে সেটি ছয়জনের মধ্যে সীমিত হয়ে আসে। এই ছয়জন হলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হক ও ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী সূত্রে জানা গেছে, দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই তালিকাও ছোট করে নিয়ে এসেছেন। চারজনের ছোট তালিকায় আছে নুরুল ইসলাম নাহিদের নাম । এ তালিকায় থাকা অন্য তিনজন হলেন শিরীন শারমিন চৌধুরী, মসিউর রহমান ও ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

সূত্রমতে, এই চারজনের যে কোনো একজনই শেষ পর্যন্ত উক্ত পদে মনোনয়ন পেতে পারেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।শিরীন শারমিন চৌধুরী যদি শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি হন, তা হবে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশের জন্য একটি মাইলফলক। তিনি শুধু প্রথম নারী রাষ্ট্রপতিই হবেন না, সম্ভবত বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতিও হবেন।

শেখ হাসিনা ইতোমধ্যেই দেশের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদী প্রধানমন্ত্রী, যিনি এক দশকের বেশি ক্ষমতায় আছেন। এটি সম্ভবত বিশ্বের প্রথম দেশ হবে যেখানে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী উভয়ই নারী।
সংবিধানের ১২৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, (১) রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে এ পদ শূন্য হলে মেয়াদ সমাপ্তির তারিখের আগের ৯০ থেকে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী এপ্রিল মাসে। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল প্রথম দফায় রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসার পর দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি ২১তম রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২০১৮ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি।

জানা গেছে, আবদুল হামিদের মেয়াদ যেহেতু আগামী এপ্রিলেই শেষ হচ্ছে, সেই হিসেবে ২৪ জানুয়ারি থেকে ২৩ এপ্রিলের মধ্যে এই নির্বাচন করতে হবে। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের।
সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্র পতি নির্বাচিত হন জাতীয় সংসদ সদস্যদের ভোটের মাধ্যমে। সংসদে যেহেতু আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে, ফলে দলটি যাকে মনোনয়ন দেবে, তিনিই রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসবেন।

জনপ্রিয় সংবাদ

আনোয়ারুল আজীমকে খুন করতে ৫ কোটি টাকার চুক্তি

রাষ্ট্রপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন সিলেটের নাহিদ

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০১:৪০:৩০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩
print news -

রাষ্ট্রপতি পদে শেষ মুহূর্তের আলোচনায়ও আছেন সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

রাষ্ট্রপতি পদে শেষ মুহূর্তের আলোচনায়ও আছেন সিলেট-৬ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। আগামী সপ্তাহেই উক্ত পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীই দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হবেন।

বৈরাগীবাজারে তাফসীরুল কুরআন মাহফিল আগামী ২০ ও ২১ ফেব্রুয়ারী

শুরু থেকে রাষ্ট্রপতি পদে ১০ জনেরও বেশি নাম আলোচনায় ছিল। পরে সেটি ছয়জনের মধ্যে সীমিত হয়ে আসে। এই ছয়জন হলেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর অর্থনীতিবিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, সাবেক প্রধান বিচারপতি খায়রুল হক ও ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী সূত্রে জানা গেছে, দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই তালিকাও ছোট করে নিয়ে এসেছেন। চারজনের ছোট তালিকায় আছে নুরুল ইসলাম নাহিদের নাম । এ তালিকায় থাকা অন্য তিনজন হলেন শিরীন শারমিন চৌধুরী, মসিউর রহমান ও ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

সূত্রমতে, এই চারজনের যে কোনো একজনই শেষ পর্যন্ত উক্ত পদে মনোনয়ন পেতে পারেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।শিরীন শারমিন চৌধুরী যদি শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি হন, তা হবে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশের জন্য একটি মাইলফলক। তিনি শুধু প্রথম নারী রাষ্ট্রপতিই হবেন না, সম্ভবত বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ রাষ্ট্রপতিও হবেন।

শেখ হাসিনা ইতোমধ্যেই দেশের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদী প্রধানমন্ত্রী, যিনি এক দশকের বেশি ক্ষমতায় আছেন। এটি সম্ভবত বিশ্বের প্রথম দেশ হবে যেখানে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী উভয়ই নারী।
সংবিধানের ১২৩ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, (১) রাষ্ট্রপতি পদের মেয়াদ অবসানের কারণে এ পদ শূন্য হলে মেয়াদ সমাপ্তির তারিখের আগের ৯০ থেকে ৬০ দিনের মধ্যে শূন্য পদ পূরণের জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী এপ্রিল মাসে। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৩ সালের ২০ এপ্রিল প্রথম দফায় রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসার পর দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি ২১তম রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২০১৮ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি।

জানা গেছে, আবদুল হামিদের মেয়াদ যেহেতু আগামী এপ্রিলেই শেষ হচ্ছে, সেই হিসেবে ২৪ জানুয়ারি থেকে ২৩ এপ্রিলের মধ্যে এই নির্বাচন করতে হবে। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনপ্রক্রিয়া সম্পন্ন করার দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের।
সংবিধান অনুযায়ী রাষ্ট্র পতি নির্বাচিত হন জাতীয় সংসদ সদস্যদের ভোটের মাধ্যমে। সংসদে যেহেতু আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা রয়েছে, ফলে দলটি যাকে মনোনয়ন দেবে, তিনিই রাষ্ট্রপতির চেয়ারে বসবেন।