০৪:৩৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ানীবাজার থানা পুলিশকে ফোন করে সাহায্য নিলেন বিশপরিবার।

print news -

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি : বন্যায় বিয়ানীবাজারের ৫ শত পরিবার পানিবন্দি। উপজেলার দশটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার লক্ষাধিক মানুষ রয়েছেন দূর্ভোগে। অনেকের ঘরে পানি আশ্রয় নিয়েছেন উপজেলার ২৯ টি আশ্রয় কেন্দ্রে। এদিকে অনেকে আবার নিজ ঘরে থাকলেও খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে,আবার অনেক পরিবার সরকারি বা বেসরকারি ত্রান,খাদ্য নিতে পারছেন না লোক লজ্জার কারনে।

শুক্রবার উপজেলার একটি এলাকার ২০টি পরিবার বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায়ের সরকারি ফোনে ফোন করে সাহায্য আবেদন করেন এবং এলাকার নাম ও সাহায্য চাওয়ার কথা প্রকাশ না করার অনুরোধ করেন।

বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায় বলেন, আমার ব্যবহার করা সরকারি নাম্বারে ফোন আসে এপর্যন্ত তারা কোন ত্রান পায়নি এবং তারা কারো কাছে চাইতেও পারছে না তাই আমার আমি ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মেহেদী হাসান, এসআই যীশু দত্ত ও এএসআই জিতু মিয়া ত্রান সহকারে সাহায্য প্রার্থীর বাড়িতে গিয়ে এবং ২০ টি পরিবারকে ত্রান প্রদান করে আসছি।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ মানুষের বন্ধু মানুষের সেবা করাই পুলিশের ধর্ম, বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ বন্যাকবলিত মানুষদের রান্না করা খাবার, শুকনো খাবার প্রদান করে আসছে।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

বিয়ানীবাজার থানা পুলিশকে ফোন করে সাহায্য নিলেন বিশপরিবার।

প্রকাশিত হয়েছেঃ ১২:৫০:৫৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৫ জুন ২০২২
print news -

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি : বন্যায় বিয়ানীবাজারের ৫ শত পরিবার পানিবন্দি। উপজেলার দশটি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার লক্ষাধিক মানুষ রয়েছেন দূর্ভোগে। অনেকের ঘরে পানি আশ্রয় নিয়েছেন উপজেলার ২৯ টি আশ্রয় কেন্দ্রে। এদিকে অনেকে আবার নিজ ঘরে থাকলেও খাদ্য সংকট দেখা দিয়েছে,আবার অনেক পরিবার সরকারি বা বেসরকারি ত্রান,খাদ্য নিতে পারছেন না লোক লজ্জার কারনে।

শুক্রবার উপজেলার একটি এলাকার ২০টি পরিবার বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায়ের সরকারি ফোনে ফোন করে সাহায্য আবেদন করেন এবং এলাকার নাম ও সাহায্য চাওয়ার কথা প্রকাশ না করার অনুরোধ করেন।

বিয়ানীবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ হিল্লোল রায় বলেন, আমার ব্যবহার করা সরকারি নাম্বারে ফোন আসে এপর্যন্ত তারা কোন ত্রান পায়নি এবং তারা কারো কাছে চাইতেও পারছে না তাই আমার আমি ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মেহেদী হাসান, এসআই যীশু দত্ত ও এএসআই জিতু মিয়া ত্রান সহকারে সাহায্য প্রার্থীর বাড়িতে গিয়ে এবং ২০ টি পরিবারকে ত্রান প্রদান করে আসছি।

তিনি আরো বলেন, পুলিশ মানুষের বন্ধু মানুষের সেবা করাই পুলিশের ধর্ম, বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ বন্যাকবলিত মানুষদের রান্না করা খাবার, শুকনো খাবার প্রদান করে আসছে।