ঢাকাবুধবার , ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. জোকস
  12. টপ নিউজ
  13. তথ্যপ্রযুক্তি
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

বিয়ানীবাজারে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ, প্রতিদিনই লাফিয়ে বাড়ছে শনাক্ত

পঞ্চবাণী অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : জুলাই ২৮, ২০২১
Link Copied!

বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে গত ২৪/০৭/২০২১(শনিবার)তারিখে প্রেরিত ৭১ টি সেম্পলের মধ্যে ৪৮জনের করোনা শনাক্ত..

শনাক্তের হার ৬৭%..
পরিস্থিতি ভয়ানক…
সবাইকে ঘরে থাকার ও স্বাস্থ্যবিধি মানার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হল।
ঘরে থাকুন সুস্ত থাকুন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন  মাস্ক পরুন ৷

সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিত করোনায় আক্রান্ত

  বিয়ানীবাজারে করোনা

সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। গত কয়েকদিন ধরে অসুস্থ থাকায় রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে তার করোনো পরীক্ষা করানো হয়। গত রোববার তার করোনা পরীক্ষায় পজিটিভ আসে।

একই সঙ্গে তার বড় ছেলে শাহেদ মুহিতও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আবদুল মুহিতের ছোট ভাই পল্লী শিশু ফাউন্ডেশন ও রাজধানীর ডেল্টা হাসপাতালের চেয়ারম্যান এ এস এ মুয়িয সুজন সংবাদমাধ্যমকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন। তিনি পরিবারের পক্ষ থেকে আবুল মাল আবদুল মুহিতের সুস্থতার জন্য সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

মঙ্গলবার বিকালে মুহিতের ব্যক্তিগত সহকারী কিশোর ভট্টাচার্য জনি বলেন, ৩-৪ দিন আগে তার করোনা পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসে। সোমবার রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চেকআপ করেছেন। বর্তমানে তিনি বনানীর বাসায় আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আপাতত জটিল কোনো সমস্যা দেখা দেয়নি।

জানা গেছে, গত এক বছরের তিক্ত অভিজ্ঞতা অনেক কিছুই শিখিয়ে গেছে জেলাবাসীকে। শনাক্তের পর গণহারে আক্রান্ত হওয়া, মানবিক সংকট সৃষ্টি হওয়া, লকডাউন দেয়া, ডাক্তার নার্সসহ সম্মুখসারির যোদ্ধারা আক্রান্ত হওয়া, হাসপাতালগুলো সেবা বন্ধ করে দেয়াসহ নানা সমস্যায় পড়তে হয় নারায়ণগঞ্জকে।

 

বিয়ানীবাজারে করোনা  এ সময় জেলাবাসীর পাশে সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান, তার স্ত্রী লিপি ওসমানের গঠিত টিমের মাধ্যমে সেবা প্রদান, জেলা প্রশাসন, জেলা সিভিল সার্জন, নানা ব্যক্তি পর্যায়ের সংগঠন ও ব্যক্তিরাও এগিয়ে আসে মানবিক সংকট মোকাবেলায়। এসময় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয় পুলিশ, র্যা ব, ডাক্তার, নার্সসহ স্বেচ্ছাসেবীরা। তবুও থেকে থাকেনি করোনা থেকে বাঁচার লড়াই।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ বলেন, গত ৮ মার্চ নারায়ণগঞ্জে প্রথম কোভিড আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। তারপর জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, র‌্যাব, বিজিবি এমনকি সেনাবাহিনীও আমাদের সাথে একসঙ্গে কাজ করেছি। একইসঙ্গে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে ডাক্তার নার্স সাংবাদিকরা কাজ করেছে। তবে গত ১ সপ্তাহ ধরে আমাদের আক্রান্তের সংখ্যাটা বাড়ছে। আমরা কাজ করছি সামাজিক সচেতনতা, মাস্ক ব্যবহার করতে জনগনকে উৎসাহিত করতে। তবে মানুষের মধ্যে উদাসীনতা রয়েছে। অনেকে ভ্যাকসিন নিয়ে মনে করছেন কোভিড জয় করে ফেলেছেন এবং তারা স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে অনীহা দেখাচ্ছেন।

নারায়ণগঞ্জ ৪ আসনের সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেন, করোনার বিষয়ে আমাদের কারোই কোনো জ্ঞান ছিল না। নারায়ণগঞ্জে শুরুতে অনেক কিছুর অভাব ছিল। শুরু থেকেই আল্লাহর হুকুমে প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা নিয়ে কাজ করায় জেলা এখন অনেকটা ভালো আছে।

তিনি বলেন, অনেকেই অনেক কথা বলেছিল যে বাংলাদেশে ২০ লাখ লোক মারা যাবে, ভ্যাকসিন আসবে না, ভ্যাকসিন আসলেও তা দেয়া যাবে না। আজ কমনওয়েলথে বিশ্বের তিনজন নারীকে নারী দিবস উপলক্ষে বিশেষ করে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সম্মানিত করা হয়েছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন। এরপর কমনওয়েলথের সেক্রেটারি যে মন্তব্য করেছেন সেটি আমার কাছে সবচেয়ে সম্মানজনক মনে হয়েছে। তিনি বলেছেন- নারী অনুপ্রেরণাকারী, এরাই এই পৃথিবীকে পুরুষ ও মহিলাসহ সবাইকে বদলে দেয়ার জন্য ক্ষমতা রাখেন। এটি আমি অনেক সম্মানের মনে করি।

করোনাযুদ্ধে প্রথম এগিয়ে আসা ব্যক্তি কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, মানবিক সংকটের যে চিত্র আমরা দেখেছি সেই চিত্র থেকে এখন মানুষ অনেক সরে এসেছে। তবে আমার এখনো ভয় হয় কারণ গত কয়েকদিন ধরে আমার ব্যক্তিগত অক্সিজেন সাপোর্ট থেকে অক্সিজেন নেয়ার পরিমাণ অনেক বেড়েছে। করোনায় শনাক্তও এখন অনেক বাড়ছে। আমাদের মধ্যে সচেতনতা একেবারেই কমে গেছে।

 

বিয়ানীবাজারে করোনা  জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির ফোকাল পারসন ডা. জাহিদুল ইসলাম বলেন, মার্চ মাস আবারো ফিরে এসেছে, শীত চলে গেছে গরম শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে আমাদের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক হয়ে গেছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথা বার বার বলা হলেও মানুষের মধ্যেই সেই প্রবণতা নেই। গত ১ সপ্তাহে আমাদের রোগীর সংখ্যা অনেক বেড়েছে। ইতোমধ্যে সর্বশেষ আমাদের ১৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। টিকা আসার পর আমাদের মধ্যে একটা গা ছাড়া ভাব চলে এসেছে দেখতে পাচ্ছি। গত দুই মাসে করোনা আক্রান্তের নিয়মিত সংখ্যা ১০ এর নিচে থাকলেও এখন গত ১৫ দিন ধরে তা নিয়মিত ১০ থেকে ২০ এর মধ্যে।

বিষয়টিকে ‘এ্যালার্মিং’ হিসেবে আখ্যায়িত কওে তিনি বলেন, করোনায় আক্রান্তের দ্বিতীয় বছরের শুরুতে এসেও নারায়ণগঞ্জকে শঙ্কামুক্ত বলতে পারছি না আমরা।

র‌্যাব ১১ এর অধিনায়ক লে. কর্নেল খন্দকার সাইফুল আলম বলেন, কোভিডকালীন আমরা সরাসরি আক্রান্ত ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে কাজ করতে গিয়ে নিজেরাও আক্রান্ত হই। এসময় আমরা মোবাইল হাসপাতাল তৈরি, উপযুক্ত মেডিকেল ট্রিটমেন্ট দেয়ার ব্যবস্থা, পোর্টেবল ইসিজি, অক্সিজেনসহ সকল ব্যবস্থা আমরা করি। আমাদের কাউকে পুলিশ হাসপাতাল সিএমএইচে পাঠাতে হয়নি আমাদের মনোবল আগের চেয়ে অধিকতর দৃঢ় রয়েছে আমরা যেভাবে সম্মুখে কাজ করেছি আবারো যে কোনো সংকটে আমরা সামনে থেকেই কাজ করবো।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।