০৬:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক সঙ্গে তিন নির্মাণশ্রমিকের মৃ ত্যু

print news -

নিউজ ডেস্ক:  নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভা এলাকায় একটি নির্মাণাধীন বাড়ির পাইলিং করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একসঙ্গে তিন নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। আজ  বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া দুইটার দিকে চৌমুহনী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কিসমত করিমপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত তিন শ্রমিক হলেন নোয়াখালী সদর উপজেলার উত্তর ওয়াফদা গ্রামের মো. জামাল মজুমদারের ছেলে মো. শাকিল (২০), শহরের সোনাপুর এলাকার মো. রিয়াজ উদ্দিন (২৮) ও কুমিল্লার চান্দিনা এলাকার বাসিন্দা মো. কামরুল (৩০)। তাঁদের লাশ বেগমগঞ্জ থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কিসমত করিমপুর এলাকায় একটি পাকা বাড়ি নির্মাণের জন্য পাঁচজন শ্রমিক পাইলিংয়ের কাজ করছিলেন। বেলা দুইটার দিকে দুই শ্রমিক পাশের দোকানে চা খেতে যান। অপর তিন শ্রমিক এ সময় পাইলিংয়ের জন্য বসানো লম্বা একটি লোহার পাইপ এক জায়গা থেকে সরিয়ে অন্য জায়গায় নিয়ে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ওই পাইপের ওপরের অংশ একটি বৈদ্যুতিক তারের ওপরে পড়ে। এতে তিন শ্রমিক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাঁদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক অসীম কুমার দাশ প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সুত্র: প্রথম আলো 

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক সঙ্গে তিন নির্মাণশ্রমিকের মৃ ত্যু

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৪:৫৪:৫৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
print news -

নিউজ ডেস্ক:  নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌরসভা এলাকায় একটি নির্মাণাধীন বাড়ির পাইলিং করার সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে একসঙ্গে তিন নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। আজ  বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া দুইটার দিকে চৌমুহনী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কিসমত করিমপুর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত তিন শ্রমিক হলেন নোয়াখালী সদর উপজেলার উত্তর ওয়াফদা গ্রামের মো. জামাল মজুমদারের ছেলে মো. শাকিল (২০), শহরের সোনাপুর এলাকার মো. রিয়াজ উদ্দিন (২৮) ও কুমিল্লার চান্দিনা এলাকার বাসিন্দা মো. কামরুল (৩০)। তাঁদের লাশ বেগমগঞ্জ থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কিসমত করিমপুর এলাকায় একটি পাকা বাড়ি নির্মাণের জন্য পাঁচজন শ্রমিক পাইলিংয়ের কাজ করছিলেন। বেলা দুইটার দিকে দুই শ্রমিক পাশের দোকানে চা খেতে যান। অপর তিন শ্রমিক এ সময় পাইলিংয়ের জন্য বসানো লম্বা একটি লোহার পাইপ এক জায়গা থেকে সরিয়ে অন্য জায়গায় নিয়ে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন। এ সময় ওই পাইপের ওপরের অংশ একটি বৈদ্যুতিক তারের ওপরে পড়ে। এতে তিন শ্রমিক বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। তাঁদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক অসীম কুমার দাশ প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ারুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, হাসপাতাল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সুত্র: প্রথম আলো