১০:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬০০ পরিবারের মাঝে ঘর তৈরির কাজ শুরু করেছেন ব্যারিস্টার সুমন

print news -

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের সহযোগিতা করতে ৩ কোটি টাকা অনুদান সংগ্রহ করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এসব টাকার মধ্যে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা ত্রাণকাজে ব্যয় করেছেন। বাকী ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা রয়েছে তার কাছে। আরও অনুদান সংগ্রহ করতে চান এই আইনজীবী। এসব টাকা দিয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬শ পরিবারকে ৬০০ ঘর তৈরি করে দেবেন তিনি। আগামীকাল শুক্রবার থেকে ঘর তৈরির কাজ শুরুর কথা রয়েছে তার।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সুমন।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ৩ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছি। এর মধ্যে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা আমি ত্রাণ কার্যক্রমের জন্য খরচ করেছি। দেড়শর বেশি ট্রাকে ত্রাণ সরবরাহ ও আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে নগদ সাহায্য করেছি। কিছু মানুষ টাকা দেওয়ার সময় বলে দিয়েছেন, এই টাকাগুলো যেন আমি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসনের কাজে খরচ করি। এজন্য আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বাকি যে টাকাটা আছে সেই টাকা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য খরচ করবো। আরও কিছু টাকা ম্যানেজ করে প্রায় ৬০০ ঘর বানাতে চাই আমরা।

১ কোটি ৬০ লাখ টাকা খরচের বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, প্রায় ১৫ হাজার পরিবারকে আমরা শুকনা খাবার দিয়েছি। তারপর নগদ টাকাও বিতরণ করেছি। তিনি বলেন, আমি যত অনুদান সংগ্রহ করেছি একটা পর্যায়ে ফেসবুকে সব টাকার হিসাব দেওয়ার চেষ্টা করব। কারণ মানুষের এই টাকার ওপর আমার ব্যক্তিগত কোনো আগ্রহ নেই।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমার কাছে এখন ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা আছে। আরও টাকা সংগ্রহ করার চেষ্টা করব। সিলেট ও সুনামগঞ্জের ৬শ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ৬০০ ঘর তৈরি করে দিতে চাই। প্রাথমিকভাবে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা দিয়ে আগামীকাল থেকে ঘর বানানো শুরু করতে চাই। আমার বিশ্বাস ঘর তৈরির কাজ শুরু করে দিলে আরও অনেক মানুষ সহযোগিতা করবেন

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬০০ পরিবারের মাঝে ঘর তৈরির কাজ শুরু করেছেন ব্যারিস্টার সুমন

প্রকাশিত হয়েছেঃ ১১:২০:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ জুলাই ২০২২
print news -

সিলেট ও সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের সহযোগিতা করতে ৩ কোটি টাকা অনুদান সংগ্রহ করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। এসব টাকার মধ্যে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা ত্রাণকাজে ব্যয় করেছেন। বাকী ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা রয়েছে তার কাছে। আরও অনুদান সংগ্রহ করতে চান এই আইনজীবী। এসব টাকা দিয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৬শ পরিবারকে ৬০০ ঘর তৈরি করে দেবেন তিনি। আগামীকাল শুক্রবার থেকে ঘর তৈরির কাজ শুরুর কথা রয়েছে তার।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সুমন।

তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত ৩ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছি। এর মধ্যে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা আমি ত্রাণ কার্যক্রমের জন্য খরচ করেছি। দেড়শর বেশি ট্রাকে ত্রাণ সরবরাহ ও আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতে নগদ সাহায্য করেছি। কিছু মানুষ টাকা দেওয়ার সময় বলে দিয়েছেন, এই টাকাগুলো যেন আমি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুর্নবাসনের কাজে খরচ করি। এজন্য আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বাকি যে টাকাটা আছে সেই টাকা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের জন্য খরচ করবো। আরও কিছু টাকা ম্যানেজ করে প্রায় ৬০০ ঘর বানাতে চাই আমরা।

১ কোটি ৬০ লাখ টাকা খরচের বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, প্রায় ১৫ হাজার পরিবারকে আমরা শুকনা খাবার দিয়েছি। তারপর নগদ টাকাও বিতরণ করেছি। তিনি বলেন, আমি যত অনুদান সংগ্রহ করেছি একটা পর্যায়ে ফেসবুকে সব টাকার হিসাব দেওয়ার চেষ্টা করব। কারণ মানুষের এই টাকার ওপর আমার ব্যক্তিগত কোনো আগ্রহ নেই।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, আমার কাছে এখন ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা আছে। আরও টাকা সংগ্রহ করার চেষ্টা করব। সিলেট ও সুনামগঞ্জের ৬শ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ৬০০ ঘর তৈরি করে দিতে চাই। প্রাথমিকভাবে ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা দিয়ে আগামীকাল থেকে ঘর বানানো শুরু করতে চাই। আমার বিশ্বাস ঘর তৈরির কাজ শুরু করে দিলে আরও অনেক মানুষ সহযোগিতা করবেন