০৭:৫৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবাজারের পরিত্যক্ত অর্ধ কোটি টাকার কাপড় কিনলেন ফারাজ করিম

print news -

বঙ্গবাজারের আগুন ভস্মীভূত ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করা ভেজা ও পরিত্যক্ত কাপড় কেনা শুরু করেছেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ফারাজ করিম চৌধুরী। জানা গেছে, বঙ্গবাজারের যে কাপড়গুলো পরিত্যক্ত হওয়ার কারণে বিক্রি করা সম্ভব না সেই কাপড়গুলোই কিনছেন তিনি।

বঙ্গবাজারে আগুনে ভস্মীভূত ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করা ভেজা ও পরিত্যক্ত কাপড়গুলো কেনা শুরু করেছেন দেশের তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় মুখ ও মানবিক রাজনীতিবিদ রাউজানের এমপি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরীর জৈষ্ট সন্তান ফারাজ করিম চৌধুরী।
যে কাপড়গুলো পরিত্যক্ত হওয়ার কারণে অন্য কোনভাবে বিক্রয় করা সম্ভব না সেই কাপড়গুলোই কিনছেন তিনি। বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে এসব কাপড় ক্রয় করে তাদেরকে লাভবান করার মাধ্যমে পরবর্তীতে গুলশানে “অস্থায়ী বঙ্গবাজার” নামে একটি স্টল করে কাপড়গুলো সেখানে বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ পুনরায় অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্তদের নিকট হস্তান্তর করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তিনি। যাতে করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাবসায়ীরা আবারো তাদের ব্যবসা শুরু করতে পারে। জানা গেছে, প্রায় অর্ধ কোটি টাকা দিয়ে প্রথম ধাপে এসব পণ্য কিনেছেন ফারাজ করিম চৌধুরী। এই পণ্যগুলোকে সুন্দরভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে পরিধানের উপযোগী করার চেষ্টা করে রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানে বিক্রয় করার ব্যবস্থা করবেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে ফারাজ করিম চৌধুরী ইনকিলাবকে বলেন, এই মুহুর্তে দুইভাবে মানুষকে সহযোগিতা করতে হবে। শুধুমাত্র কাউকে ৫ হাজার বা ১০ হাজার টাকা দিলে কিছুই হবে না। এরা কেউ কারো দান গ্রহণ করার মতো মানুষ না৷ দান গ্রহণ করার ব্যাপারে কাউকে আমি ছোট করতে চাই না। তারা সকলেই ব্যবসায়ী, তারা নিজেদের আত্মসম্মান নিয়ে ব্যবসা করেন। তাদেরকে যতটুকু সম্ভব ব্যবসায়িকভাবে সহযোগিতা করতে হবে। এজন্য প্রথম ধাপে আমি তাদের কাছ থেকে লাভ দিয়ে পন্য কিনে নিয়ে পরবর্তীতে আমি নিজে একজন দোকানদার হয়ে গুলশানে এগুলো বিক্রি করবো। এর বিক্রয়লব্ধ অর্থ দিয়ে পুনরায় সেসব ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে আরো পণ্য ক্রয় করবো, সেগুলো আবার গুলশানে এনে নামীদামী মানুষদের কাছে বিক্রি করে সেই টাকা অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের নিকট পৌঁছে দিব।

এই মানবিক কার্যক্রমে যারা আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে চান, তারা নিম্নের বিভিন্ন মাধ্যমে সহযোগিতা পাঠাতে পারবেন।
♦️বিকাশ এজেন্ট- 01814328820 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️নগদ এজেন্ট- 01601973999 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️রকেট এজেন্ট- 01818211471-4 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️টাকা পাঠাতে পারবেন নিম্নলিখিত ব্যাংক একাউন্ট এর মাধ্যমেঃ
A/C Number # 0563000001457
Routing Number # 165156499
One Bank Limited
Raozan Branch
Raozan, Chattogram
Bangladesh.
জনপ্রিয় সংবাদ

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

বঙ্গবাজারের পরিত্যক্ত অর্ধ কোটি টাকার কাপড় কিনলেন ফারাজ করিম

প্রকাশিত হয়েছেঃ ১১:৫৯:১৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৭ এপ্রিল ২০২৩
print news -

বঙ্গবাজারের আগুন ভস্মীভূত ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করা ভেজা ও পরিত্যক্ত কাপড় কেনা শুরু করেছেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক ফারাজ করিম চৌধুরী। জানা গেছে, বঙ্গবাজারের যে কাপড়গুলো পরিত্যক্ত হওয়ার কারণে বিক্রি করা সম্ভব না সেই কাপড়গুলোই কিনছেন তিনি।

বঙ্গবাজারে আগুনে ভস্মীভূত ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার করা ভেজা ও পরিত্যক্ত কাপড়গুলো কেনা শুরু করেছেন দেশের তরুণ প্রজন্মের জনপ্রিয় মুখ ও মানবিক রাজনীতিবিদ রাউজানের এমপি এবি এম ফজলে করিম চৌধুরীর জৈষ্ট সন্তান ফারাজ করিম চৌধুরী।
যে কাপড়গুলো পরিত্যক্ত হওয়ার কারণে অন্য কোনভাবে বিক্রয় করা সম্ভব না সেই কাপড়গুলোই কিনছেন তিনি। বঙ্গবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে এসব কাপড় ক্রয় করে তাদেরকে লাভবান করার মাধ্যমে পরবর্তীতে গুলশানে “অস্থায়ী বঙ্গবাজার” নামে একটি স্টল করে কাপড়গুলো সেখানে বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ পুনরায় অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্তদের নিকট হস্তান্তর করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তিনি। যাতে করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাবসায়ীরা আবারো তাদের ব্যবসা শুরু করতে পারে। জানা গেছে, প্রায় অর্ধ কোটি টাকা দিয়ে প্রথম ধাপে এসব পণ্য কিনেছেন ফারাজ করিম চৌধুরী। এই পণ্যগুলোকে সুন্দরভাবে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে পরিধানের উপযোগী করার চেষ্টা করে রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশানে বিক্রয় করার ব্যবস্থা করবেন তিনি।
এ প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করা হলে ফারাজ করিম চৌধুরী ইনকিলাবকে বলেন, এই মুহুর্তে দুইভাবে মানুষকে সহযোগিতা করতে হবে। শুধুমাত্র কাউকে ৫ হাজার বা ১০ হাজার টাকা দিলে কিছুই হবে না। এরা কেউ কারো দান গ্রহণ করার মতো মানুষ না৷ দান গ্রহণ করার ব্যাপারে কাউকে আমি ছোট করতে চাই না। তারা সকলেই ব্যবসায়ী, তারা নিজেদের আত্মসম্মান নিয়ে ব্যবসা করেন। তাদেরকে যতটুকু সম্ভব ব্যবসায়িকভাবে সহযোগিতা করতে হবে। এজন্য প্রথম ধাপে আমি তাদের কাছ থেকে লাভ দিয়ে পন্য কিনে নিয়ে পরবর্তীতে আমি নিজে একজন দোকানদার হয়ে গুলশানে এগুলো বিক্রি করবো। এর বিক্রয়লব্ধ অর্থ দিয়ে পুনরায় সেসব ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে আরো পণ্য ক্রয় করবো, সেগুলো আবার গুলশানে এনে নামীদামী মানুষদের কাছে বিক্রি করে সেই টাকা অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের নিকট পৌঁছে দিব।

এই মানবিক কার্যক্রমে যারা আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে চান, তারা নিম্নের বিভিন্ন মাধ্যমে সহযোগিতা পাঠাতে পারবেন।
♦️বিকাশ এজেন্ট- 01814328820 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️নগদ এজেন্ট- 01601973999 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️রকেট এজেন্ট- 01818211471-4 এই নাম্বারে টাকা পাঠানোর সময় Cash Out অপশন নির্বাচন করতে হবে।
♦️টাকা পাঠাতে পারবেন নিম্নলিখিত ব্যাংক একাউন্ট এর মাধ্যমেঃ
A/C Name : A.B.M Fazle Karim Chowdhury Foundation
A/C Number # 0563000001457
Routing Number # 165156499
One Bank Limited
Raozan Branch
Raozan, Chattogram
Bangladesh.

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা `র বাসায় থেকে নষ্ট হলো দুস্থদের খাদ্যসামগ্রী