০৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় ২ মাস বয়সী সন্তানসহ হলে এসে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন যমজ দুইবোন

print news -

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে ২ মাস বয়সী সন্তানসহ হলে এসে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন যমজ দুইবোন।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুই বোন তাদের নিজ নিজ সন্তান কোলে কেন্দ্রে প্রবেশ করলে সেখানে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। পরীক্ষা শুরুর আগে দুধ পান করানোর পর তারা তাদের বাচ্চাদের মা ও খালা’র কাছে দিয়ে পরীক্ষার হলে ঢোকেন।

জানা গেছে, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বাবা রঞ্জু মিয়া করোনাকালীন সময়ে অতি-আর্থিক দৈন্যতায় পরে দুই মেয়েকে বিয়ে দেন। কুলসুমের উপজেলার সদর ইউনিয়নের পারতিতপরল গ্রামে এবং ফাতেমাকে পাশের গাবতলী উপজেলার দাঁড়াইল বিয়ে দেন। সে সময় তারা দু’জনেই নবম শ্রেণীতে পড়তেন। তাদের স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজনের উৎসাহে তারা দু’জন এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছেন। গত ২ মাস আগে তাদের দু’জনের কোলজুড়ে ছেলে ও মেয়ে সন্তান আসে।

উম্মে কুলসুম ও উম্মে ফাতেমা জানান, তাদের লেখাপড়া করার খুব ইচ্ছে ছিলো। কিন্তু করোনাকালে স্কুল বন্ধ থাকায় এবং তাদের বাবা ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তাদের বিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। তারা ভেবেছিলেন তাদের লেখাপড়া শেষ। কিন্তু শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাদের এসএসসি পরীক্ষা দিতে উৎসাহ যোগান। এরপর তারা প্রস্তুতি নিয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছেন।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

বগুড়ায় ২ মাস বয়সী সন্তানসহ হলে এসে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন যমজ দুইবোন

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৩:০২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
print news -

বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে ২ মাস বয়সী সন্তানসহ হলে এসে এসএসসি পরীক্ষা দিলেন যমজ দুইবোন।

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুই বোন তাদের নিজ নিজ সন্তান কোলে কেন্দ্রে প্রবেশ করলে সেখানে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। পরীক্ষা শুরুর আগে দুধ পান করানোর পর তারা তাদের বাচ্চাদের মা ও খালা’র কাছে দিয়ে পরীক্ষার হলে ঢোকেন।

জানা গেছে, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী বাবা রঞ্জু মিয়া করোনাকালীন সময়ে অতি-আর্থিক দৈন্যতায় পরে দুই মেয়েকে বিয়ে দেন। কুলসুমের উপজেলার সদর ইউনিয়নের পারতিতপরল গ্রামে এবং ফাতেমাকে পাশের গাবতলী উপজেলার দাঁড়াইল বিয়ে দেন। সে সময় তারা দু’জনেই নবম শ্রেণীতে পড়তেন। তাদের স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজনের উৎসাহে তারা দু’জন এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছেন। গত ২ মাস আগে তাদের দু’জনের কোলজুড়ে ছেলে ও মেয়ে সন্তান আসে।

উম্মে কুলসুম ও উম্মে ফাতেমা জানান, তাদের লেখাপড়া করার খুব ইচ্ছে ছিলো। কিন্তু করোনাকালে স্কুল বন্ধ থাকায় এবং তাদের বাবা ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তাদের বিয়ে দেওয়া হয়েছিলো। তারা ভেবেছিলেন তাদের লেখাপড়া শেষ। কিন্তু শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাদের এসএসসি পরীক্ষা দিতে উৎসাহ যোগান। এরপর তারা প্রস্তুতি নিয়ে পরীক্ষা দিতে এসেছেন।