০৯:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নেতৃত্বের দৌড়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে চান না, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

print news -

ব্রিটেনে কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্বের দৌড়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে চান না বলে জানিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ফলে ব্রিটেনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে গেলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ঋষি সুনাক।

বরিস জনসন দাবি করেছেন, ১০২ জন সাংসদের সমর্থন পেয়ে তিনি শর্ত পূরণ করতে পেরেছেন। তবে প্রকাশ্যে তার পক্ষে ৫৭ জন সাংসদের সমর্থনের ব্যাপারে গণমাধ্যমে উঠে এসেছে।

বরিস জনসন আরও দাবি করেছেন, তার যথেষ্ট সমর্থন রয়েছে। কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যদের সঙ্গে নির্বাচনে তার সফল হওয়ার খুব ভালো সম্ভাবনা রয়েছে। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন- আগামী সাধারণ নির্বাচনে জয়লাভের জন্য বেশ ভালো অবস্থানে তিনি আছেন। তবে, এটি সঠিক সময় নয়।

বর্তমানে প্রতিদ্বন্দ্বিতার দৌড়ে ঋষি সুনাক বেশ ভালো অবস্থানে রয়েছেন। বরিস জনসন সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ঋষি। ঋষি সুনাক বলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারি এবং ইউক্রেনের যুদ্ধের সময় তার কর্মের জন্য ‘আমরা সর্বদা তার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকব’।

ঋষির প্রচার দলের একজন বিবিসিকে বলেছেন, এরই মধ্যে ১০০ সাংসদের সমর্থন নিশ্চিত করেছেন ঋষি। গত শুক্রবার পেনি মরডান্ট নিজেকে প্রতিযোগী হিসেবে ঘোষণা করেছেন। তবে ১০০ সাংসদের সমর্থনের বিষয়টি এখনো তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি। সোমবার দুপুর ২টা পর্যন্ত তিনি সেই সময় পাচ্ছেন।
সূত্র: বিবিসি।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

নেতৃত্বের দৌড়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে চান না, সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৮:৫৩:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ অক্টোবর ২০২২
print news -

ব্রিটেনে কনজারভেটিভ পার্টির নেতৃত্বের দৌড়ে বাধা হয়ে দাঁড়াতে চান না বলে জানিয়েছেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। ফলে ব্রিটেনের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে গেলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ঋষি সুনাক।

বরিস জনসন দাবি করেছেন, ১০২ জন সাংসদের সমর্থন পেয়ে তিনি শর্ত পূরণ করতে পেরেছেন। তবে প্রকাশ্যে তার পক্ষে ৫৭ জন সাংসদের সমর্থনের ব্যাপারে গণমাধ্যমে উঠে এসেছে।

বরিস জনসন আরও দাবি করেছেন, তার যথেষ্ট সমর্থন রয়েছে। কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যদের সঙ্গে নির্বাচনে তার সফল হওয়ার খুব ভালো সম্ভাবনা রয়েছে। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন- আগামী সাধারণ নির্বাচনে জয়লাভের জন্য বেশ ভালো অবস্থানে তিনি আছেন। তবে, এটি সঠিক সময় নয়।

বর্তমানে প্রতিদ্বন্দ্বিতার দৌড়ে ঋষি সুনাক বেশ ভালো অবস্থানে রয়েছেন। বরিস জনসন সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্তে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ঋষি। ঋষি সুনাক বলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারি এবং ইউক্রেনের যুদ্ধের সময় তার কর্মের জন্য ‘আমরা সর্বদা তার প্রতি কৃতজ্ঞ থাকব’।

ঋষির প্রচার দলের একজন বিবিসিকে বলেছেন, এরই মধ্যে ১০০ সাংসদের সমর্থন নিশ্চিত করেছেন ঋষি। গত শুক্রবার পেনি মরডান্ট নিজেকে প্রতিযোগী হিসেবে ঘোষণা করেছেন। তবে ১০০ সাংসদের সমর্থনের বিষয়টি এখনো তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি। সোমবার দুপুর ২টা পর্যন্ত তিনি সেই সময় পাচ্ছেন।
সূত্র: বিবিসি।