১১:১৪ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশের রাজনৈতিক সহিংসতায় মানবাধিকার কমিশনের নিন্দা

print news -

দেশের রাজনৈতিক সহিংসতায় রাজধানীতে দেশের প্রধান দুটি রাজনৈতিক দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘটিত রাজনৈতিক সহিংসতায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। একই সঙ্গে দেশজুড়ে ব্যাপক সংঘাত, নির্বিাচারে পুলিশ, গণমাধ্যমকর্মী ও জনসাধারণকে আক্রমণের ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয় ও মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন বলেও আখ্যা দিয়েছে।

আজ রবিবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

ড. কামাল বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে রাজনৈতিক দলগুলো সভা-সমাবেশ ও বিভিন্ন ইস্যুতে সমালোচনা করবেএটাই প্রত্যাশিত। তবে সমাবেশের নামে জনগণের জানমালের ওপর আক্রমণ, অগ্নিসংযোগ ও সংঘর্ষের ঘটনা চরম নিন্দনীয়। বিশেষ করে পুলিশ সদস্যকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এ ছাড়া বিভিন্ন গণপরিবহন, সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হতাহতের সংবাদ, জনসাধারণকে নির্বিচারে আক্রমণ, পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের বেধড়ক পেটানোর তথ্য কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। এ অবস্থায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। সুস্থ রাজনৈতিক চর্চার বদলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আসতে হবে। জনসাধারণের অবাধ, শান্তিপূর্ণ ও সহিংসতামুক্ত চলাফেরার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সে প্রচেষ্টা চালাতে হবে বলে এতে উল্লেখ করা হয়েছে।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন : ২০৪ নেতাকে বহিষ্কার করল বি.এন.পি

দেশের রাজনৈতিক সহিংসতায় মানবাধিকার কমিশনের নিন্দা

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৮:৪৬:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ অক্টোবর ২০২৩
print news -

দেশের রাজনৈতিক সহিংসতায় রাজধানীতে দেশের প্রধান দুটি রাজনৈতিক দলের সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘটিত রাজনৈতিক সহিংসতায় তীব্র উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। একই সঙ্গে দেশজুড়ে ব্যাপক সংঘাত, নির্বিাচারে পুলিশ, গণমাধ্যমকর্মী ও জনসাধারণকে আক্রমণের ঘটনাকে অত্যন্ত নিন্দনীয় ও মানবাধিকারের চরম লঙ্ঘন বলেও আখ্যা দিয়েছে।

আজ রবিবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

ড. কামাল বলেন, গণতান্ত্রিক দেশে রাজনৈতিক দলগুলো সভা-সমাবেশ ও বিভিন্ন ইস্যুতে সমালোচনা করবেএটাই প্রত্যাশিত। তবে সমাবেশের নামে জনগণের জানমালের ওপর আক্রমণ, অগ্নিসংযোগ ও সংঘর্ষের ঘটনা চরম নিন্দনীয়। বিশেষ করে পুলিশ সদস্যকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা কোনোভাবেই কাম্য নয়। এ ছাড়া বিভিন্ন গণপরিবহন, সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় হতাহতের সংবাদ, জনসাধারণকে নির্বিচারে আক্রমণ, পুলিশ ও গণমাধ্যমকর্মীদের বেধড়ক পেটানোর তথ্য কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। এ অবস্থায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। সুস্থ রাজনৈতিক চর্চার বদলে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, পর্যাপ্ত ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আসতে হবে। জনসাধারণের অবাধ, শান্তিপূর্ণ ও সহিংসতামুক্ত চলাফেরার ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে ভবিষ্যতে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সে প্রচেষ্টা চালাতে হবে বলে এতে উল্লেখ করা হয়েছে।