০৫:৫৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দশমিনায় গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহ ত্যা

print news -

নিউজ ডেস্ক:  পটুয়াখালীর দশমিনায় সুমাইয়া আক্তার (১৮) নামের এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দশমিনা গ্রামে সুমাইয়ার নানাবাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

সুমাইয়া আক্তার ওই এলাকার মো: নজরুল ইসলামের বড় মেয়ে এবং দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সুমাইয়া ছোট বেলা থেকে তার নানা মো: কালাম মিয়ার বাড়িতে বসবাস ও পড়াশুনা করেন। একপর্যায়ে নানা ও নানি মৃত্যুতে সুমাইয়া মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তিনি। পরে তাকে বরিশাল ও ঢাকায় মানসিক ডাক্তার দেখালেও তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়নি। দুপুর ১টার দিকে নানাবাড়ির ঘরের আড়ার সাথে সুমাইয়াকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে থাকতে দেখেন তার মামি আসমা বেগম। তার ডাক-চিৎকারে স্বজনরা ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মিঠুন চন্দ্র হাওলদার মৃত ঘোষণা করেন।

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘সুমাইয়ার লাশ থানা আনা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ ও একটি অপমৃত্যু মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’

ট্যাগঃ

দশমিনায় গলায় ফাঁস দিয়ে কলেজছাত্রীর আত্মহ ত্যা

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৫:৩১:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২৩
print news -

নিউজ ডেস্ক:  পটুয়াখালীর দশমিনায় সুমাইয়া আক্তার (১৮) নামের এক কলেজছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দশমিনা গ্রামে সুমাইয়ার নানাবাড়ি থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

সুমাইয়া আক্তার ওই এলাকার মো: নজরুল ইসলামের বড় মেয়ে এবং দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সুমাইয়া ছোট বেলা থেকে তার নানা মো: কালাম মিয়ার বাড়িতে বসবাস ও পড়াশুনা করেন। একপর্যায়ে নানা ও নানি মৃত্যুতে সুমাইয়া মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন তিনি। পরে তাকে বরিশাল ও ঢাকায় মানসিক ডাক্তার দেখালেও তিনি পুরোপুরি সুস্থ হয়নি। দুপুর ১টার দিকে নানাবাড়ির ঘরের আড়ার সাথে সুমাইয়াকে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে থাকতে দেখেন তার মামি আসমা বেগম। তার ডাক-চিৎকারে স্বজনরা ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. মিঠুন চন্দ্র হাওলদার মৃত ঘোষণা করেন।

দশমিনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘সুমাইয়ার লাশ থানা আনা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ ও একটি অপমৃত্যু মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’