০৮:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছোট ছোট অবদান বড় করে দেখছেন তামিম

print news -

জিম্বাবুয়ে সফরটা এখনো অবধি বেশ স্বস্তিতেই কাটছে বাংলাদেশের। একমাত্র টেস্টে জয়ের পর প্রথম ওয়ানডেতেও দারুণ এক জয় তুলে নিয়েছে তামিম ইকবালের দল। শুরুতে কিছুটা বিপাকে পড়লেও তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে সহজেই জয় পেয়েছে টাইগাররা।

তাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল লিটন দাসের সেঞ্চুরির। ৩৫ বলে ৪৫ রান করেছিল আফিফ হোসেনও। তার ইনিংসটিকেও গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। আগামীকাল (রোববার) দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে মাঠে নামবে টাইগাররা। এই ম্যাচের আগে তামিম বলছেন, ছোট ছোট অবদানগুলো গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, ‘১০০ বা ৫০ নিয়ে কথা বলা খুব সহজ। কিন্তু আমার কাছে ছোট ছোট অবদান খুব গুরুত্বপূর্ণ। আফিফের ইনিংসটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সে ওই ইনিংসটা না খেললে ২৭০ রান করতে পারতাম না। ৩০-৪০ রান কম হতো। মিরাজের ২২-২৩ রানের ইনিংসও গুরুত্বপূর্ণ ছিল। রিয়াদ ভাই আউট হওয়ার পর আরেকটি উইকেট পড়ে গেলে বিপদ হতো। আমার কাছে মনে হয় এই ছোট ছোট অবদানের কৃতিত্ব দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। যেটা আমি পছন্দ করি।’

জুনিয়রদের কৃতিত্ব দিয়ে তিনি বলেন, ‘একটা পর্যায়ে খুব বিপদে ছিলাম। একটা কথা সবসময় বলি, জুনিয়রদের পারফর্ম করতে হবে। এটা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়। আমরাও বলেছি। কাল এক্ষেত্রে আদর্শ ম্যাচ ছিল। যেখানে লিটন বেশ দায়িত্ব নিয়ে একটা ইনিংস খেলেছে।’

প্রথম ওয়ানডেতে ১৫৫ রানের বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এমন জয়ের পরও উন্নতির জায়গা দেখছেন তামিম। দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে তিনি বলেছেন, উন্নতির কোনো শেষ নেই। বিশেষত টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা তুলে ধরেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘উন্নতির তো কোনো শেষ নেই। তবে কম রানে তিনটা উইকেট পড়ে যাওয়া আদর্শ না। টপ অর্ডার থেকে আমি বা সাকিব যদি আরেকটু ভালো খেলি, তাহলে দল হয়তো এমন অবস্থায় পড়বে না। চেষ্টা করব যে পরের ম্যাচে এমন সুযোগ এলে কাজে লাগাতে। এছাড়া আমাদের বোলিং নিয়ে আমি খুবই খুশি।’

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

ছোট ছোট অবদান বড় করে দেখছেন তামিম

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০২:৪৩:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ জুলাই ২০২১
print news -

জিম্বাবুয়ে সফরটা এখনো অবধি বেশ স্বস্তিতেই কাটছে বাংলাদেশের। একমাত্র টেস্টে জয়ের পর প্রথম ওয়ানডেতেও দারুণ এক জয় তুলে নিয়েছে তামিম ইকবালের দল। শুরুতে কিছুটা বিপাকে পড়লেও তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের প্রথমটিতে সহজেই জয় পেয়েছে টাইগাররা।

তাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা ছিল লিটন দাসের সেঞ্চুরির। ৩৫ বলে ৪৫ রান করেছিল আফিফ হোসেনও। তার ইনিংসটিকেও গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল। আগামীকাল (রোববার) দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচে মাঠে নামবে টাইগাররা। এই ম্যাচের আগে তামিম বলছেন, ছোট ছোট অবদানগুলো গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি বলেন, ‘১০০ বা ৫০ নিয়ে কথা বলা খুব সহজ। কিন্তু আমার কাছে ছোট ছোট অবদান খুব গুরুত্বপূর্ণ। আফিফের ইনিংসটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ছিল। সে ওই ইনিংসটা না খেললে ২৭০ রান করতে পারতাম না। ৩০-৪০ রান কম হতো। মিরাজের ২২-২৩ রানের ইনিংসও গুরুত্বপূর্ণ ছিল। রিয়াদ ভাই আউট হওয়ার পর আরেকটি উইকেট পড়ে গেলে বিপদ হতো। আমার কাছে মনে হয় এই ছোট ছোট অবদানের কৃতিত্ব দেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। যেটা আমি পছন্দ করি।’

জুনিয়রদের কৃতিত্ব দিয়ে তিনি বলেন, ‘একটা পর্যায়ে খুব বিপদে ছিলাম। একটা কথা সবসময় বলি, জুনিয়রদের পারফর্ম করতে হবে। এটা নিয়ে অনেক আলোচনা হয়। আমরাও বলেছি। কাল এক্ষেত্রে আদর্শ ম্যাচ ছিল। যেখানে লিটন বেশ দায়িত্ব নিয়ে একটা ইনিংস খেলেছে।’

প্রথম ওয়ানডেতে ১৫৫ রানের বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। এমন জয়ের পরও উন্নতির জায়গা দেখছেন তামিম। দ্বিতীয় ওয়ানডের আগে তিনি বলেছেন, উন্নতির কোনো শেষ নেই। বিশেষত টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতা তুলে ধরেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘উন্নতির তো কোনো শেষ নেই। তবে কম রানে তিনটা উইকেট পড়ে যাওয়া আদর্শ না। টপ অর্ডার থেকে আমি বা সাকিব যদি আরেকটু ভালো খেলি, তাহলে দল হয়তো এমন অবস্থায় পড়বে না। চেষ্টা করব যে পরের ম্যাচে এমন সুযোগ এলে কাজে লাগাতে। এছাড়া আমাদের বোলিং নিয়ে আমি খুবই খুশি।’