ঢাকামঙ্গলবার , ২৯শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. জোকস
  12. টপ নিউজ
  13. তথ্যপ্রযুক্তি
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

গ্যাস ও পেটফোলার হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

পঞ্চবাণী অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : অক্টোবর ১, ২০২২
Link Copied!

গ্যাস ও পেটফোলা সাধারণত বদহজম এবং তলপেট অঞ্চলে অত্যধিক গ্যাস জমা হওয়ার কারণে ঘটে। এতে পেটে চাপ ধরা বা ফোলাভাব এবং কিছু চরম ক্ষেত্রে শরীর দুর্বল করে দেওয়া তীব্র ব্যথা ও অস্বস্তি অনুভব করতে পারেন। ফুলে যাওয়া এবং গ্যাসের অন্যান্য কারণগুলির মধ্যে রয়েছে গম বা ময়দায় অ্যালার্জি, অস্বস্তিকর পেটফাঁপার লক্ষণ, যা খেলে পেট ফেঁপে যাওয়া, ল্যাকটোজ অসহিষ্ণুতার পাশাপাশি অ্যাসিড রিফ্লাক্সের মতো গুরুতর পরিস্থিতি।

হোমিওপ্যাথি একটি বহু পুরোনো চিকিৎসা বিজ্ঞান যা প্রাকৃতিক ওষুধের সাহায্যে এই গ্যাস বদহজম এবং আরও অনেক ধরণের রোগের চিকিৎসা করার চেষ্টা করে। তবে সঠিক চিকিৎসা পাওয়ার জন্যডাক্তারের কাছে যাওয়া এবং তাকে আপনাকে সঠিকভাবে পরীক্ষা করার এবং ওষুধগুলির সঠিক সংমিশ্রণটি নির্ধারণ করাটা গুরুত্বপূর্ণ। কেননা চিকিৎসক আপনার অবস্থা এবং রোগের লক্ষণগুলি যত ভাল বুঝতে পারবেন, তিনি তত ভাল চিকিৎসা আপনাকে দিতে পারবেন।

ফাঁপা পেট বলতে আসলে পেটে একরকম পূর্ণতার অনুভূতি, দৃঢ়তা এবং ফুলে যাওয়া বোঝায়। এতে পেটে অতিরিক্ত গ্যাস জমা হয়। পেটে ফুলে যাওয়া বেদনাদায়ক হতে পারে, পাশাপাশি ক্র্যাম্পিং বা খিলও ধরতে পারে।

এরকম পেট ফোলার পেছনে প্রধান কারণগুলি হল কোষ্ঠকাঠিন্য, অস্বস্তিকর পেটফাঁপার লক্ষণ, আটা-ময়দায় অ্যালার্জি, খেলে গ্যাস হয় এমন খাবার গ্রহণ, অতিরিক্ত পরিমানে খাবার খাওয়া, ল্যাকটোজের অসহিষ্ণুতার মতো খাবারের অসহিষ্ণুতা এবং অ্যাসিড রিফ্লাক্স (ডিসপেপ্সি‌য়া)।

দোকান থেকে কিনতে পাওয়া তাৎক্ষণিক গ্যাস-উপশমকারী বড়ি এবং টনিকগুলি কেবল একটা অস্থায়ী আরাম বোধ হতে পারে, কিন্তু আসল কার্যকারক একই জায়গায় থেকে যায়। হোমিওপ্যাথিক ওষুধগুলি ফুলে যাওয়া বা ফোলা পেটের পুরোপুরি নিরাময় করতে পারে। প্রাকৃতিক পদার্থ থেকে তৈরি এবং কোনোরকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া থেকে মুক্ত হোমিওপ্যাথিক ওষুধগুলো পেটের এইসব সমস্যা বারবার ঘটতে না দিয়ে সমস্যার মূলে আঘাত করে একে সম্পূর্ণরূপে সরিয়ে দেয়।

পেটফোলা এবং গ্যাসের জন্য হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা-

হোমিওপ্যাথিক ওষুধগুলি ফুলে যাওয়া পেটের চিকিৎসার জন্য খুব কার্যকর। সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান থেকে বেছে নেয়া হোমিওপ্যাথিক ওষুধগুলো পেটফোলার ক্ষেত্রে খুবই উপকারি। হোমিওপ্যাথি ফোলাভাব সম্পূর্ণভাবে সারিয়ে দেয়। পেটে ফুলে যাওয়া পেটের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা পেট থেকে বায়ু বের করতে খুব সাহায্য করে, ফলে রোগী স্বস্তি পায়। পেটে ব্যথা, জ্বলন এবং অন্যান্য সম্পর্কিত লক্ষণগুলি প্রাকৃতিক হোমিওপ্যাথিক ওষুধের ব্যবহারের সাথে সাথে ভাল হয়ে যায়। আপনি গ্যাস এবং ফোলাভাবের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করতে পারেন এমন কিছু হোমিওপ্যাথিক ওষুধের একটি তালিকা নিচে দেওয়া হল-
গ্রাফাইটস: এটি হোমিওপ্যাথির মধ্যে সর্বাধিক ব্যবহৃত এবং সবচেয়ে কার্যকর উপাদান। গ্রাফাইটগুলি ফুলে যাওয়া পেটের চিকিৎসায় সাহায্য করতে পারে যা দীর্ঘস্থায়ী কোষ্ঠকাঠিন্যের একটা বৈশিষ্ট্য। যখন পেটের ভিতরের গ্যাস বেরোতে পারে না, তখন দেহ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে গ্যাসটি জমা হয়ে যায় এবং পেটের ভিতরে প্রচুর অস্বস্তি এবং ব্যথা তৈরি করে। এছাড়াও, যখন পেটের গ্যাসের সঙ্গে কোনও আপত্তিকর গন্ধ বেরোয়, তখনও এই ওষুধটি ব্যবহার করতে পারেন।
কার্বো ভেজ: এটি ফোলাভাব এবং গ্যাসের চিকিৎসায় অন্যতম সেরা একটি হোমিওপ্যাথিক উপায়। সাধারণত এই ওষুধটাই সবচেয়ে বেশি দেওয়া হয় বিশেষ করে যখন গ্যাস জমে জমে ফোলাভাবের সঙ্গে ঢেকুরও ওঠে। পেটে জমা হওয়া বাতাস অনেক রোগীর শ্বাসকষ্টের জন্ম হতে পারে, সব ক্ষেত্রে এই জাতীয় ওষুধটি বিস্ময়করভাবে কাজ করে বলে পরিচিত।
অ্যাবিজ ক্যান: এটি বেদনাদায়ক ফোলাভাবের জন্য একটি প্রাকৃতিক হোমিওপ্যাথিক ওষুধ যা বুক ধড়ফড়ের ক্ষেত্রেও কাজে আসে। এই জাতীয় ক্ষেত্রে, পেট জ্বলুনির সঙ্গে লড়াই করার জন্য ডাক্তার এই ওষুধটি লিখে দিতে পারেন। এই ওষুধের দ্বারা চিকিৎসাকরা যায় এমন অন্যান্য লক্ষণগুলির মধ্যে হঠাৎ পেটে মোচড় দেওয়াও রয়েছে।
ম্যাগনেসিয়াম ফস: গ্যাস এবং ফোলাভাব থেকে যখন পেটে অসহনীয় ব্যথা হয় এই ওষুধটি তার চিকিৎসা করতে সহায়তা করে। এছাড়াও, গ্যাস জমা হওয়ার কারণে এটি পেটের পূর্ণতা বোধের চিকিৎসার জন্যও ব্যবহার করা যেতে পারে। তার পাশাপাশি, এই ওষুধ দ্বারা চিকিৎসা করা অন্যান্য লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে ঢেকুর বা হিক্কা ওঠা।
রাফানাস: গ্যাস পেটের স্বাভাবিক হজম প্রক্রিয়াটিকে বাধা দেয়। এই রাফনাস ওষুধটি তার সফল চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত হতে পারে। যখন গ্যাসের কারণে পেট শক্ত হয়ে যায় অর্থাৎ ভেতর থেকে বায়ু বাইরে আসতে পারে না তখন এটি ব্যবহার করা যেতে পারে।
চাইনা: এটি একটি হোমিওপ্যাথিক ওষুধ যা পরিপূর্ণতা, দৃঢ়তা, ব্যথা এমনকি পেটে ভারাক্রান্তির মতো লক্ষণগুলি থেকে মুক্তি দিতে সহায়তা করে। এটি রোগীকে সচল থাকতে সহায়তা করতে যাতে উপসর্গগুলি তাড়াতাড়ি দূর হয়।
হোমিওপ্যাথি একটি বহু পুরোনো চিকিৎসা বিজ্ঞান যা প্রাকৃতিক ওষুধের সাহায্যে এই গ্যাস বদহজম এবং আরও অনেক ধরণের রোগের চিকিৎসা করার চেষ্টা করে। তবে সঠিক চিকিৎসা পাওয়ার জন্যডাক্তারের কাছে যাওয়া এবং তাকে আপনাকে সঠিকভাবে পরীক্ষা করার এবং ওষুধগুলির সঠিক সংমিশ্রণটি নির্ধারণ করাটা গুরুত্বপূর্ণ। কেননা চিকিৎসক আপনার অবস্থা এবং রোগের লক্ষণগুলি যত ভাল বুঝতে পারবেন, তিনি তত ভাল চিকিৎসা আপনাকে দিতে পারবেন।

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল পঞ্চবানী.কম এ  লিখতে পারেন আপনিও। খবর, ফিচার, ভ্রমন, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি, খেলা-ধুলা। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন   newsdeskpb@gmail.com   ঠিকানায়।