০৩:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগামীকাল থেকে সারাদেশে এসএসসি-সমমানের পরীক্ষা শুরু

print news -

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা। এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডসহ ১১টি শিক্ষা বোর্ডের আওতায় মোট ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন পরীক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। সারাদেশে ২৯ হাজার ৫৯১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মোট ৩ হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভকেশনাল) পরীক্ষায় অংশ নেবে। এ বছর এসএসসি পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত হওয়ার কথা থাকলেও সার্বিক দিক বিবেচনা করে যানজট এড়াতে তা পিছিয়ে বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত।
গত ১৯ জুন এসএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও সিলেটসহ দেশের অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির কারণে তা পিছিয়ে যায়। এবার সংশোধিত ও পুনর্বিন্যাস করা সিলেবাসে ৩ ঘণ্টার পরিবর্তে ২ ঘণ্টা পরীক্ষা নেয়া হবে। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে এসএসসি ও এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হলেও এ বছর করোনা ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে এ দুটি গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক পরীক্ষা পিছিয়ে যায়। গত বছর এসএসসি পরীক্ষা নেয়া হলেও করোনার কারণে এইচএসসিতে শিক্ষার্থীদের অটোপাস দেয় সরকার।
এর আগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার সরকারও এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবসহ কোনো প্রকার অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের আহ্বান জানান। শিক্ষামন্ত্রী এর আগে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, এসএসসি ও সমমান পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।
নির্দেশনার পরও পরীক্ষার সময় কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয় কেন এমন প্রশ্নে মঙ্গলবার তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা না এলে কোচিং সেন্টার এমনিতেই বন্ধ থাকবে। এরপরও যদি কোনো কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয়, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরীক্ষার এই সময় সন্তানদের কোচিং সেন্টারে না পাঠানোর জন্য অভিভাবকদের অনুরোধ জানান তিনি।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্যা পরিস্থিতির অবনতি সিলেট, সুনামগঞ্জ ও কুড়িগ্রাম

আগামীকাল থেকে সারাদেশে এসএসসি-সমমানের পরীক্ষা শুরু

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৫:৫০:১২ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২
print news -

আগামীকাল বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) থেকে শুরু হচ্ছে এসএসসি পরীক্ষা। এ বছর ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ড, মাদরাসা এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডসহ ১১টি শিক্ষা বোর্ডের আওতায় মোট ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন পরীক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবেন। সারাদেশে ২৯ হাজার ৫৯১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা মোট ৩ হাজার ৭৯০টি কেন্দ্রে এসএসসি, দাখিল ও এসএসসি (ভকেশনাল) পরীক্ষায় অংশ নেবে। এ বছর এসএসসি পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত হওয়ার কথা থাকলেও সার্বিক দিক বিবেচনা করে যানজট এড়াতে তা পিছিয়ে বেলা ১১টা থেকে শুরু হয়ে চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত।
গত ১৯ জুন এসএসসি পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও সিলেটসহ দেশের অঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির কারণে তা পিছিয়ে যায়। এবার সংশোধিত ও পুনর্বিন্যাস করা সিলেবাসে ৩ ঘণ্টার পরিবর্তে ২ ঘণ্টা পরীক্ষা নেয়া হবে। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসে এসএসসি ও এপ্রিলে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হলেও এ বছর করোনা ও বন্যা পরিস্থিতির কারণে এ দুটি গুরুত্বপূর্ণ পাবলিক পরীক্ষা পিছিয়ে যায়। গত বছর এসএসসি পরীক্ষা নেয়া হলেও করোনার কারণে এইচএসসিতে শিক্ষার্থীদের অটোপাস দেয় সরকার।
এর আগে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি অধ্যাপক তপন কুমার সরকারও এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজবসহ কোনো প্রকার অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হতে শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের আহ্বান জানান। শিক্ষামন্ত্রী এর আগে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন, এসএসসি ও সমমান পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ২ অক্টোবর পর্যন্ত দেশের সব কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে।
নির্দেশনার পরও পরীক্ষার সময় কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয় কেন এমন প্রশ্নে মঙ্গলবার তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা না এলে কোচিং সেন্টার এমনিতেই বন্ধ থাকবে। এরপরও যদি কোনো কোচিং সেন্টার খোলা রাখা হয়, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরীক্ষার এই সময় সন্তানদের কোচিং সেন্টারে না পাঠানোর জন্য অভিভাবকদের অনুরোধ জানান তিনি।