০৮:৩৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অ নৈতিক সম্পর্ক চেয়েছিলেন হৃতিক, তাই সরে আসে ন কঙ্গনা!

print news -

নিউজ ডেস্ক: বলিউড তারকা হৃতিক রোশন ও কঙ্গনা রানাওয়াতের সম্পর্কের বিষয়টি অজানা নয় কারো। দুজনের গোপন সম্পর্ক নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। একটা পর্যায়ে দুজনে এই সম্পর্ক ছিন্ন করেন। তারপর একে অন্যের ওপর কাঁদা ছোড়াছুড়িও করেছেন দুজন।এর আগেও হৃতিককে একাধিকবার দোষারোপ করেছেন অভিনেত্রী। সংবাদ মাধ্যমেও আক্রমন করে কথা বলেছেন। জবাব দিয়েছেন হৃতিকও। তবে সেসব এখন অতীত।যদিও এখনও প্রায়ই কঙ্গনার বিভিন্ন অভিযোগে আকার ইঙ্গিতে ওঠে আসে হৃতিকের নাম। তবে ইন্টারনেটে হৃতিক সম্পর্কে কঙ্গনার বেশ কিছু ভিডিও এখনো ঘুরে বেড়ায়। যার মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ‘আপ কি আদালত’-এ কঙ্গনার বলা কিছু কথা। ভিডিওটি এখনও দর্শকদের বেশ আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দু বলা যায়।

ভারতের জনপ্রিয় টিভি শো ‘আপ কি আদালত’-এ এসে কঙ্গনা রানাওয়াত হৃতিক ও তার সম্পর্কের বিষয়ে সবটাই খোলাসা করেছিলেন। সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়, ‘তাদের মধ্যে কি আদৌ কোনও সম্পর্ক ছিল?’উত্তরে কঙ্গনা জানিয়েছিলেন, নিঃসন্দেহে ছিল। কিন্তু কোথাও গিয়ে যেন হৃত্বিক রোশন এই সম্পর্কের জন্য তৈরি ছিলেন না। হৃত্বিকের একটি শর্ত ছিল এই সম্পর্কে। তিনি সম্পর্কটা চেয়েছিলেন, কঙ্গনাকেও চেয়েছিলেন।কিন্তু বলেছিলেন তিনি এমন পরিবারের ছেলে যেখানে বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়া সম্ভব নয়। তিনি তার স্ত্রী অর্থাৎ সুজন খানকে ছাড়তে পারবেন না। তখনই হৃত্বিকের জীবন থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, তিনি এভাবে থাকতে পারবেন না। কারণ এভাবে থাকা যায় না। এটিকে অনৈতিক সম্পর্ক হিসেবেই ব্যাখ্যা করেন কঙ্গনা। ঠিক সেই কারণেই হৃত্বিক রোশনকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বলে দাবি করেন অভিনেত্রী। এরপরও একাধিকবার হৃতিক ফিরতে চান অভিনেত্রীর জীবনে, যদিও সেটি আর সফল হয়নি। হৃতিককে বড়লোক বাবার নষ্ট হওয়া ছেলে বলেও আখ্যা দেন কঙ্গনা। এমনকি তার মানসিক চিকিৎসার প্রয়োজন বলেও আপ কি আদালতে জানান কঙ্গনা। ২০১৪ সালে হৃতিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ করেন কঙ্গনা। তবে দুজনের বিচ্ছেদ যে খুব একটা সুখকর ছিল না তা সকলের স্মৃতিতে এখনও তরতাজা।কঙ্গনাকে সর্বশেষ দেখা গেছে তার চলচ্চিত্র ‘তেজাস’-এ। সিনেমাটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়। অপরদিকে হৃতিক তার আসন্ন সিনেমা ‘ফাইটার’ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এতে আরো রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। এছাড়াও ‘ওয়ার ২’ চলচ্চিত্রটি আসছে অভিনেতার।

ট্যাগঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের ৩৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত

অ নৈতিক সম্পর্ক চেয়েছিলেন হৃতিক, তাই সরে আসে ন কঙ্গনা!

প্রকাশিত হয়েছেঃ ০৩:৫৮:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২৩
print news -

নিউজ ডেস্ক: বলিউড তারকা হৃতিক রোশন ও কঙ্গনা রানাওয়াতের সম্পর্কের বিষয়টি অজানা নয় কারো। দুজনের গোপন সম্পর্ক নিয়ে কম বিতর্ক হয়নি। একটা পর্যায়ে দুজনে এই সম্পর্ক ছিন্ন করেন। তারপর একে অন্যের ওপর কাঁদা ছোড়াছুড়িও করেছেন দুজন।এর আগেও হৃতিককে একাধিকবার দোষারোপ করেছেন অভিনেত্রী। সংবাদ মাধ্যমেও আক্রমন করে কথা বলেছেন। জবাব দিয়েছেন হৃতিকও। তবে সেসব এখন অতীত।যদিও এখনও প্রায়ই কঙ্গনার বিভিন্ন অভিযোগে আকার ইঙ্গিতে ওঠে আসে হৃতিকের নাম। তবে ইন্টারনেটে হৃতিক সম্পর্কে কঙ্গনার বেশ কিছু ভিডিও এখনো ঘুরে বেড়ায়। যার মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ‘আপ কি আদালত’-এ কঙ্গনার বলা কিছু কথা। ভিডিওটি এখনও দর্শকদের বেশ আকর্ষনের কেন্দ্রবিন্দু বলা যায়।

ভারতের জনপ্রিয় টিভি শো ‘আপ কি আদালত’-এ এসে কঙ্গনা রানাওয়াত হৃতিক ও তার সম্পর্কের বিষয়ে সবটাই খোলাসা করেছিলেন। সেখানে তাকে প্রশ্ন করা হয়, ‘তাদের মধ্যে কি আদৌ কোনও সম্পর্ক ছিল?’উত্তরে কঙ্গনা জানিয়েছিলেন, নিঃসন্দেহে ছিল। কিন্তু কোথাও গিয়ে যেন হৃত্বিক রোশন এই সম্পর্কের জন্য তৈরি ছিলেন না। হৃত্বিকের একটি শর্ত ছিল এই সম্পর্কে। তিনি সম্পর্কটা চেয়েছিলেন, কঙ্গনাকেও চেয়েছিলেন।কিন্তু বলেছিলেন তিনি এমন পরিবারের ছেলে যেখানে বিবাহ বিচ্ছেদ হওয়া সম্ভব নয়। তিনি তার স্ত্রী অর্থাৎ সুজন খানকে ছাড়তে পারবেন না। তখনই হৃত্বিকের জীবন থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন, তিনি এভাবে থাকতে পারবেন না। কারণ এভাবে থাকা যায় না। এটিকে অনৈতিক সম্পর্ক হিসেবেই ব্যাখ্যা করেন কঙ্গনা। ঠিক সেই কারণেই হৃত্বিক রোশনকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বলে দাবি করেন অভিনেত্রী। এরপরও একাধিকবার হৃতিক ফিরতে চান অভিনেত্রীর জীবনে, যদিও সেটি আর সফল হয়নি। হৃতিককে বড়লোক বাবার নষ্ট হওয়া ছেলে বলেও আখ্যা দেন কঙ্গনা। এমনকি তার মানসিক চিকিৎসার প্রয়োজন বলেও আপ কি আদালতে জানান কঙ্গনা। ২০১৪ সালে হৃতিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ করেন কঙ্গনা। তবে দুজনের বিচ্ছেদ যে খুব একটা সুখকর ছিল না তা সকলের স্মৃতিতে এখনও তরতাজা।কঙ্গনাকে সর্বশেষ দেখা গেছে তার চলচ্চিত্র ‘তেজাস’-এ। সিনেমাটি বক্স অফিসে ব্যর্থ হয়। অপরদিকে হৃতিক তার আসন্ন সিনেমা ‘ফাইটার’ নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন। এতে আরো রয়েছেন দীপিকা পাড়ুকোন। এছাড়াও ‘ওয়ার ২’ চলচ্চিত্রটি আসছে অভিনেতার।